fbpx

অদিতি ফাল্গুনীর মড়ক, মৃত্যু ও প্রেমের পদাবলী

Pinterest LinkedIn Tumblr +

অদিতি ফাল্গুনী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইন বিভাগে সম্মান ও স্নাতকোত্তর। কাজ করেছেন একাধিক ইংরেজি সংবাদপত্র, প্রকাশনা সংস্থা, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক সংস্থায়, বাংলা একাডেমির অনুবাদ বিভাগ ও জাতিসংঘে। এখন নেদারল্যান্ডসের এআরআলটি ফাউন্ডেশনে সমাজবিজ্ঞানে অন্তর্জালে পড়া-শোনার পাশাপাশি ইউএন ওমেনে পরামর্শক ও অনুবাদক হিসেবে কাজ করছেন। কবিতা-গল্প-উপন্যাস-অনুবাদ ও শিশুতোষ গ্রন্থ মিলিয়ে তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৩২। ২০১১ সালে সৃজনশীল শাখায় প্রথম আলো বর্ষ সেরাসহ জাতীয় পর্যায়ে পেয়েছেন মোট চারটি সাহিত্য পুরষ্কার। বিবিএস বাংলা’র পাঠকদের জন্য অদিতি ফাল্গুনী লিখেছেন মড়ক, মৃত্যু ও প্রেমের পদাবলী।

১.
করোনার কবিতা

আমরা ফিরে আসছি আবার,
অনন্ত বেগুণী উদ্ভাসে…
ফিরে আসছি আমি সাগরলতা!
ফিরে আসছি আমরা লাল কাঁকড়ার দল
কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে,
ফিরে আসছি ঘুঘু পাখি, কাঠবিড়ালী আর শালিখের ঝাঁক,
ফিরে আসছি গোলাপী বর্ণ ডলফিন…
এবার মানুষ…তোমরাও বন্ধ করো যত হিমায়িত ঘর,
অনি:শেষ শপিং মলের সারি, যৌগিক খাবারের কৌটা…
আমাদের ফুটতে দাও, উড়তে দাও, সাঁতরাতে দাও
তোমাদের কাছে, তোমাদের পাশাপাশি…

২.
বাগান বিলাসের ফিসফাস…

এই যত তুচ্ছ নি:শ্বাস,
যত বাগান বিলাসের ফিসফাস…
ছেড়ে যেতে চাই, পায়ে পিষতে চাই
কারো দাম্ভিকতা, পুরুষতান্ত্রিকতা
অন্যায্য সন্দেহের অকারণ কঠোর দন্ডভোগ…
সব পায়ে পিষে আমার মুক্তি এই আকাশের আলোয় আলোয়
আমার মুক্তি বাগানবিলাসের ফিসফাসে…
ভাবতে চাই অন্য কারো কথা আজ যত দু:খ ভোলার রেওয়াজে।

৩.

তোমার ছবিতা যত

করছি ভুল কি আমি,
করছি কতটা পাপ?
সমাজ পোড়াবে আমায়,
দেবে যে মনস্তাপ!
তোমার জন্য তবু দেব যে সাগর পাড়ি,
দাও না আমার সাথে দাও না যতই আড়ি।
তুলট মেঘেতে আঁকো
তোমার ছবিতা যত,
আকাশে উঠবে ফুটে।
আমার কবিতা তত।

Share.

Leave A Reply