fbpx

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে মাস্ক না পরায় জরিমানা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

করোনার বিশেষ জনস্বাস্থ্য আইন ভঙ্গ করার অপরাধে অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবটকে ৫০০ ডলার জরিমানা করেছে দেশটির নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের পুলিশ।

ডেইলি মেইলের খবরে বলা হয়েছে, গত ৮ সেপ্টেম্বর সিডনির ম্যানলি সমুদ্রসৈকতে মাস্ক ছাড়া অবস্থায় অ্যাবটের একটি ছবি তুলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন এক ব্যক্তি।

নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের পুলিশ বলেছে, সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে জনসম্মুখে মাস্ক পরার যে নির্দেশনা রয়েছে তা অমান্য করায় সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে ৫০০ অস্ট্রেলীয় ডলার জরিমানা করা হয়েছে।

যদিও টনি অ্যাবট অস্বীকার করেছেন, যে তিনি আইন ভঙ্গ করেছেন। তবে তিনি বলেছেন, ‘আমি জরিমানাকে চ্যালেঞ্জ করতে যাচ্ছি না। কারণ, আমি পুলিশের সময় নষ্ট করবো না।’

অবশ্য প্রত্যক্ষদর্শী আরও একজন জানিয়েছেন, মাস্ক না পরেই অ্যাবট তার এক বন্ধুর সাথে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করছিলেন।

এদিকে, অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে করোনায় নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত। টানা তিন মাস ধরে সেখানে চলছে লকডাউন। এমনকি, কোথাও কোথাও কারফিউও জারি করা রয়েছে। তাই, খুব স্বাভাবিকভাবেই প্রশাসন একটুও ছাড় দিচ্ছে না কাউকে।

এর আগে গত ২৮ জুন মাস্ক না পরার কারণে দেশটির উপপ্রধানমন্ত্রীকেও জরিমানা করা হয়েছিল।

মন্ত্রী তখন মিডিয়াকে বলেছিলেন, ‘আমি মাত্র ৩০ সেকেন্ড মাস্ক ছাড়া ছিলাম। এটি ছিল আমার ভুল সিদ্ধান্ত। এর জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। পুলিশ তার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করায় তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই।’

এছাড়াও, গত বছর এপ্রিল মাসে মন্ত্রী বব হারউন করোনাকালীন বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করলে পুলিশ তাকেও ১ হাজার ডলার জরিমানা করেছিল। ওই ঘটনায় তিনি পদত্যাগ করেছিলেন।

Share.

Leave A Reply