fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৪ঠা ডিসেম্বর ২০২২ | ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

অ্যাকাউন্ট ফিরে পেলেও টুইটারে ফিরতে চান না ট্রাম্প!

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় উসকানি দেওয়ার অভিযোগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে নিষিদ্ধ করা হয় তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। তবে এক ‘গণতান্ত্রিক’ উপায়ে তার অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দিচ্ছেন টুইটারের নতুন মালিক ও বর্তমান সিইও ইলন মাস্ক।

রবিবার এক প্রতিবেদনে এ কথা জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এএফপি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে জরিপ শুরু করেন ইলন মাস্ক। সেখানে তিনি টুইটার ব্যবহারকারীদের কাছে জানতে চেয়েছিলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট পুনরায় চালু করা উচিত কি-না।

এতে দেখা গেছে, ৫১.৮ শতাংশ চান ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট ফিরে আসুক আর ৪৮.২ শতাংশ চান না ট্রাম্প টুইটার ব্যবহার করুক।

অবশ্য শনিবার ট্রাম্প জানান, তিনি টুইটারে ফিরে আসতে চান না। তিনি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ‘ট্রুথ সোশ্যাল’ অ্যাপটিতেই থাকতে চান।

২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের কাছে হেরে যাওয়ায় ফলাফল উল্টে দিতে সমর্থকদের উসকে দেন ট্রাম্প। এক্ষেত্রে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার, ইনস্টাগ্রাম এবং ফেসবুককে ব্যবহার করেন তিনি। গত বছরের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে হামলায় ভূমিকার জন্য ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়।

এদিকে সম্প্রতি টুইটারের মালিকানা কিনে নেওয়ার পর তার অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেন মাস্ক। তিনি টুইট বার্তায় বলেন, মানুষ এখন কথা বলছে। ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

প্রতিবেদনে জানা গেছে, ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট স্থগিতের সময় ৮৮ মিলিয়নেরও বেশি ব্যবহারকারী ছিল। প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন টুইটারে প্রতিপক্ষকে আক্রমণ, রাজনৈতিকসহ নানা ধরনের পোস্ট করে আলোচনায় থাকতেন তিনি।

Advertisement
Share.

Leave A Reply