fbpx

আটক হলেন আরিয়ানের মাদক মামলার অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভি

Pinterest LinkedIn Tumblr +

বলিউড সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানের মাদক মামলায় মুক্তি দেয়ার জন্য অর্থ আদান-প্রদানের অভিযোগে অভিযুক্ত কিরণ গোসাভিকে আটক করা হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস খবরটি প্রকাশ করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) ভারতের পুনে থেকে তাকে আটক করা হয়। আরিয়ান খানের মাদক মামলায় এনসিবির অন্যতম সাক্ষী হওয়ার খবরের আলোচনায় ছিলেন কিরণ গোসাভি। তার বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি প্রতারণার অভিযোগ ওঠে। যার মধ্য অন্যতম, আরিয়ানকে মুক্তি দেয়ার জন্য ২৫ কোটি টাকা আদায়ের পরিকল্পনা করেছিলেন গোসাভি।

পুনে পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত বলেছেন, ‘মুম্বাইয়ের প্রমোদতরীতে মাদক মামলায় এনসিবি’ র অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে আটক করা হয়েছে। আপাতত এর সঙ্গে শাহরুখ পুত্রের মামলার কোনো সংযোগ নেই। তবে যত দিন যাচ্ছে,ততই মাদক মামলার সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেককে নিয়ে জলঘোলা হচ্ছে।

২০১৮ সালের একটি প্রতারণা মামলায় গোসাভির বিরুদ্ধে নোটিস জারি করে পুণে পুলিশ। পুলিশের দাবি, তার পর থেকেই গোসাভির খোঁজ মিলছিল না।

আরিয়ানকে যেদিন প্রমোদতরী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়, সেদিন সেখানে গোসাভি উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পরবর্তীরতে এনসিবি’র অফিসে আরিয়নের সাথে সেলফি তোলেন তিনি।

গত রবিবার(২৪ অক্টোবর) গোসাভির দেহরক্ষী বলে দাবি করা এক ব্যক্তি ঘুষ সংক্রান্ত লেনদেনের অভিযোগ তুলেছিলেন তার বিরুদ্ধে। প্রভাকর সইল নামে ওই ব্যক্তি দাবি করেন, টেলিফোনে ২৫ কোটি টাকা ঘুষের বিষয়টি নিয়ে গোসাভিকে কথা বলতে শুনেছিলেন তিনি। সেই ২৫ কোটির মধ্যে আট কোটি টাকা এনসিবি কর্তা সমীর ওয়াংখেড়েকে দেওয়ার কথাও নাকি হয়েছিল।

গোসাভি যদিও এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন এই বলে যে, ‘এই প্রথম বিষয়টি আমি শুনছি।’

এমনকি গোসাভি দাবী করেন, ২ অক্টোবরের আগে তিনি সমীর ওয়াংখেড়েকে চিনতেন না।

Share.

Leave A Reply