fbpx

আদালতের আদেশ হলেই কিছু অনলাইন বন্ধ করা হবে: তথ্যমন্ত্রী

Pinterest LinkedIn Tumblr +

দেশে আসলে ব্যাঙের ছাতার মতো এতো অনলাইনের প্রয়োজন নেই, এমন মন্তব্য করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আদেশের লিখিত কপি হাতে পাওয়ার পর পরই আদালতের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে কিছু অনলাইন বন্ধ করে দেওয়া হবে।

আজ (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ের সময় মন্ত্রী এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘যেসব অনলাইন সত্যিকার অর্থে গণমাধ্যম হিসেবে কাজ করে না, বরং নিজস্ব বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করে, ব্যাঙের ছাতার মতো এত অনলাইন আসলে দেশে প্রয়োজন নেই।’

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘যার যেমন ইচ্ছা একটা অনলাইন খুলে বসবে এবং সেটি নিয়ে যেমন ইচ্ছা তেমন সংবাদ পরিবেশন করবে, মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করবে, গুজব রটানোর কাজে ব্যস্ত হবে, অন্যের চরিত্র হনন করবে, ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে পরিচালিত হবে, কোনো ব্যবসায়ীর স্বার্থ সংরক্ষণের জন্য সেখানে লেখালেখি হবে, এটি কোনোভাবেই সমীচীন নয়। সেক্ষেত্রে এ আদেশ অবশ্যই সহায়ক আদেশ।’

মন্ত্রী জানান, ‘এখন রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত যে অনলাইনগুলো আছে, সেগুলো ছাড়া ভবিষ্যতে আর কোনো অনলাইন বের হবে না এমন কোনো নিয়ম নেই অথবা আজ যে পত্রপত্রিকা আছে সেগুলো ছাড়া ভবিষ্যতে আর কোনো পত্রপত্রিকা বের হবে না এমনও কোনো নিয়ম নেই। তবে ভবিষ্যতে অনলাইন নিবন্ধন দিতে হবে। অনলাইন নিবন্ধন আমরা একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করছি, সেটি আমরা আদালতের কাছে উপস্থাপন করবো।’

তিনি বলেন, ‘আমরা কিছু অনলাইন বন্ধ করব, একইসাথে আদালতের নজরে আনব এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। যাচাই-বাছাই ছাড়াই যদি সবগুলোকে একসাথে বন্ধ করে দেওয়া হয়, সেটি কতটুকু সমীচীন সেটাও ভাবার বিষয়, সেটিও আমরা আদালতের নজরে আনব।’

তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আরও বলেন, ‘আমরা যেভাবে অনলাইনের নিবন্ধন দিচ্ছি, একইভাবে ইউটিউব বা আইপিটিভি নিবন্ধন দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছি। এখনো কাউকে নিবন্ধন দেওয়া হয়নি। আমরা আশা করেছিলাম গত মাস থেকে দিতে পারবো। কিন্তু, তদন্ত রিপোর্ট না পাওয়ায় আমরা নিবন্ধন দিতে পারিনি। ব্যাঙের ছাতার মতো আইপিটিভি করার যে সুযোগ রয়েছে, এটা কোনোভাবেই সমীচীন নয়। যেসব আইপিটিভি বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে পরিচালিত হচ্ছে এবং নিজেকে টেলিভিশন চ্যানেলের মতো জাহির করছে, দ্রুত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো।’

এর আগে হাইকোর্ট গতকাল মঙ্গলবার অনিবন্ধিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দেন। নির্দেশনায় বিটিআরসির চেয়ারম্যান ও প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যানকে আদালতের আদেশ পাওয়ার সাতদিনের মধ্যে তা বাস্তবায়ন করতে বলা হয়।

Share.

Leave A Reply