fbpx

করোনায় ক্যাশেভীতি, বেড়েছে কার্ডে লেনদেন

Pinterest LinkedIn Tumblr +

দেশে করোনা মহামারীর কারণে নগদ টাকা লেনদেন অনেকটা ভাটা পড়েছে। গ্রাহকরা নগদ টাকার বদলে কার্ডে লেনদেন করতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছেন। ফলে কার্ডভিত্তিক এই লেনদেন বেড়ে চলেছে। গত অক্টোবর মাসে ক্রেডিট ও ডেবিডসহ বিভিন্ন ধরনের কার্ডে আগের চেয়ে লেনদেন বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, অক্টোবর মাসে কার্ডভিত্তিক লেনদেন হয়েছে ১৮ হাজার ৮৯ কোটি ৮০ লাখ টাকা। ২০১৯ সালের অক্টোবরের তুলনায় যা ১৬ দশমিক ৯ শতাংশ বেশি। এই সময়ে লেনদেন হয়েছিল ১৫ হাজার ৬৬১ কোটি ৮০ লাখ টাকা।

শুধু তাই নয়, একই সময় দেশে মোবাইল ব্যাংকিংয়ে লেনেদেনের পরিমাণও বেড়েছে। গেল অক্টোবরে লেনদেন হয় ৫৩ হাজার ২৫৪ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। আর সেপ্টেম্বরে এর পরিমাণ ছিল ৪৯ হাজার ১২১ কোটি ২৫ লাখ টাকা। ফলে এক মাসে লেনদেন বেড়েছে ৮ দশমিক ৪ শতাংশ।

এদিকে অক্টোবরে এটিএম কার্ডে লেনদেন হয় এক কোটি ৭৫ লাখ ৪৯ হাজার ৪৩২ বার। টাকার অঙ্কে যার পরিমাণ ছিল ১৫ হাজার ৩২৮ কোটি ৮০ লাখ। গেল মাসের তুলনায় যা এক হাজার ৮২ কোটি ২০ লাখ টাকা বেশি। সেপ্টেম্বরে এক্ষেত্রে লেনদেন হয়েছিল ১৪ হাজার ২৪৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা।

অন্যদিকে, পয়েন্ট অব সেলে (পিওএস) লেনদেন হয়েছে ২৯ লাখ ৭ হাজার ৬৯১ বার, টাকার অঙ্কে যার পরিমাণ ছিল এক হাজার ৪৫২ কোটি ৭০ লাখ টাকা। সেপ্টেম্বরে লেনদেনের পরিমাণ ছিল এক হাজার ৩৪৯ কোটি ৬০ লাখ টাকা। সে হিসেবে এক মাসে লেনদেন বেড়েছে ১০৩ কোটি ১০ লাখ টাকার বেশি।

এছাড়া কাস্টমার রিলেশনশিপ ম্যানেজমেন্টে (সিআরএম) লেনদেন হয়েছে ৮৮৫ কোটি ৮০ লাখ টাকা, যা তার আগের মাসের তুলনায় ২০৯ কোটি ৭০ লাখ টাকা বেশি। ই-কমার্স ট্রানজেকশনে ৫৪৩ কোটি ১০ লাখ টাকার লেনদেন হয়।

মোট কথা গেল অক্টোবরে এটিএম, পিওএস, সিআরএম এবং কমার্স মিলে মোট ১৮ হাজার ৮৯ কোটি ৮০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। সেপ্টেম্বর মাসের তুলনায় যা ৭ শতাংশ বেশি।

সেপ্টেম্বরে এটিএম, পিওএস, সিআরএম ও ই-কমার্সে লেনদেন হয়েছিল ১৬ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা। আর আগস্টে লেনদেন হয়েছিল ১৪ হাজার কোটি টাকার ওপরে।

Share.

Leave A Reply