fbpx

কে এই যুক্তরাজ্যের জেল পালানো ড্যানিয়েল খলিফ

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

গত বুধবার সকালে এইচএমপি ওয়ান্ডসওয়ার্থ থেকে পলাতক সন্ত্রাসী সন্দেহভাজনকে চিসউইকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মেট্রোপলিটন পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার সকাল ১১টার আগে তারা তাকে গ্রেপ্তার করেছ পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

একটি ডেলিভারি ভ্যানের নীচে নিজেকে বেঁধে জেলের রান্নাঘর থেকে পালিয়েছিলেন এই কয়েদি।

যুক্তরাজ্যের নেতা ঋষি সুনাক  ভারতের দিল্লিতে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে সম্প্রচারকদের সাথে কথা বলার সময় পুলিশ অফিসারদের গত কয়েকদিন ধরে তাদের চমৎকার কাজের জন্য ধন্যবাদ জানায়। এমনকী স্বরাষ্ট্র দফতরের মন্ত্রী ক্রিস ফিলপ সন্ত্রাসী সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করার জন্য পুলিশকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

সবার মনে প্রশ্ন এসেছে, কে এই ব্যক্তি যাকে নিয়ে এত হইচই!

এই ড্যানিয়েল খলিফ একজন  হাস্যোজ্জ্বল সৈনিক থেকে সন্দেহভাজন গুপ্তচরের খাতায় নাম লেখান। খালিফকে একটি নকল বোমা স্থাপন এবং  সন্ত্রাসবাদ বা শত্রুদের জন্য দরকারী  তথ্য সংগ্রহের অভিযোগে  বি ক্যাটাগরির বন্দী কারাগারে রাখা হয়েছিল। যদিও  তিনি তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

খালিফের বিরুদ্ধে অভিযোগের মধ্যে রয়েছে যে তিনি অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট ১৯১১ লঙ্ঘন করে এমন সংবেদনশীল তথ্য সংগ্রহ করে প্রকাশ করেছে  যা শত্রু পক্ষের জন্য কার্যকর হতে পারে। এবং এই শত্রু দেশটি ইরান বলে ধারনা করা হয়।

প্রাক্তন এই  সৈনিক আগে বিকন ব্যারাক, বিকনসাইড, স্টাফোর্ড ের কথিত বোমা জালিয়াতির সাথে সম্পর্কিত একটি ফৌজদারি অপরাধের জন্যও অভিযুক্ত। দাবি করা হয় যে, তিনি তাঁর বাসস্থানের একটি ডেস্কে তারের সাথে তিনটি ক্যানিস্টার রেখেছিলেন যেটি বিস্ফোরণ বা জ্বলতে পারে ।

তার পালানোর ফলে ১৫০  জন কাউন্টার টেরোরিজম অফিসার জড়িত একটি বড় পুলিশ হান্টের জন্ম দেয়। বন্দর এবং বিমানবন্দরগুলিকে সতর্ক অবস্থায় রাখা হয় এবং কিছু যাত্রীদের অতিরিক্ত চেক করায় ফ্লাইটগুলো বিলম্বের সম্মুখীন হয়।  খলিফ পালিয়ে যাওয়ার পর জেল লকডাউন করা হয়। দক্ষিণ লন্ডন সাইটে রিমান্ডে অন্যান্য আসামীদের জন্য আদালতের শুনানি ব্যাহত হয়।

উলউইচ ক্রাউন কোর্টে ১৩  নভেম্বরতাড় উপর  সন্ত্রাসবাদের অভিযোগের জন্য একটি বিচারের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

Advertisement
Share.

Leave A Reply