fbpx

বাংলাদেশ থেকে কেউ যদি ইসরায়েলে যায় তাকে শাস্তি পেতে হবে : মোমেন

Pinterest LinkedIn Tumblr +

বাংলাদেশ থেকে কেউ ইসরায়েলে গেলেই তাকে শাস্তি পেতে হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন।

২৬ মে বুধবার রাজধানীর রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবনে আয়োজিত ফিলিস্তিনিদের ওষুধ-সামগ্রী উপহার হস্তান্তর অনুষ্ঠানে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য বিকন ফার্মাসিটিকলস লিমিটেডের প্রায় ৪০ লাখ টাকার ওষধ সামগ্রী গ্রহণ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন।

এ সময় ড. মোমেন উল্লেখ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ফিলিস্তিনের জনগণকে মানবিক সহায়তা হিসেবে ৫০ হাজার ডলার প্রদান করবেন। বাংলাদেশ এ সহায়তা অব্যাহত রাখবে। বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংস্থা সরাসরি ফিলিস্তিনের জনগণের জন্য সহায়তা প্রদান করছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেই না। বাংলাদেশ থেকে কেউ যদি ইসরায়েলে যায়, তাহলে তাকে শাস্তি পেতে হবে’।

তিনি বলেন, ‘ফিলিস্তিন আমাদের পুরনো বন্ধু। ১৯৭২ সাল থেকেই আমরা তাদের পাশে থেকেছি, সমর্থন করে যাচ্ছি। আমরা ইসরায়েলকে দেশ হিসেবে স্বীকার করি না। যতদিন আমরা স্বীকৃতি না দিচ্ছি, ততদিন কোনো বাংলাদেশি সে দেশে যেতে পারবে না’।

এসময় গণমাধ্যমে পাসপোর্ট নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘পাসপোর্ট একটি পরিচয় মাত্র। ​পররাষ্ট্রনীতির সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। বঙ্গবন্ধুর সময়ে যে পররাষ্ট্রনীতি ছিল এখনও তা রয়েছে। আমরা ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেইনি। আমরা নতুন ই-পাসপোর্ট দেওয়া শুরু করেছি। প্রশাসনিক কারণে সেখান থেকে ‘ইসরায়েল বাতিল’ শব্দ দু’টি ফেলে দেওয়া হয়েছে’।

এসময় ঢাকায় নিযুক্ত ফিলিস্তিনের রাষ্ট্রদূত ইউসুফ এস ওয়াই রামাদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Share.

Leave A Reply