fbpx

গুগল ফাই’য়ে চালু হচ্ছে ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন’ পরিষেবা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

গুগলের জনপ্রিয় মোবাইল সেবা ‘গুগল ফাই (fi)’ এবার ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন’ সেবা চালু করছে। প্রথম ধাপে অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলোয় যোগ হবে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন সেবা।

এই পরিষেসেবার সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, যে দুই পক্ষের মধ্যে শুধু কথাবার্তা হচ্ছে, তারা ছাড়া অন্য কেউ এই আলাপ দেখতে পাবে না। এই প্রযুক্তি তৃতীয় কোনো পক্ষকে ব্লক করে দেয়। ফলে এখানে আড়ি পাতার কোনো সুযোগই থাকে না। মেসেঞ্জার বা হোয়াটসঅ্যাপে কথোকপথনের জন্য এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন সেবা বেশ পরিচিত।

গুগল এক ব্লগ পোস্টে বলেছে, ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন মেসেজিং-এর মতো রিয়াল টাইম যোগাযোগের জন্য শিল্প মানে পরিণত হয়েছে– আমরা এই সেবা ফোন অ্যাপে নিয়ে আসছি। ফাইয়ের মাধ্যমে দুটি অ্যান্ড্রয়েড ফোনের মধ্যে ফোন কল ডিফল্ট ফিচার হিসেবে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন সুবিধা পাবে। আপনি এটা জেনে নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন যে আপনার কলগুলো আপনি ও যার সঙ্গে কথা বলছেন সেই দু’জনের  মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে।‘

প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট জানিয়েছে, এনক্রিপ্টেড ফোন কল এসেছে কি না, তা জানা যাবে একটি ‘বিশেষ রিংটোনের’ মাধ্যমে। সংযোগ স্থাপন করার আগে স্ক্রিনে দেখা যাবে ‘লক সিম্বল’। ফোন কল চলাকালীনও স্ক্রিনে ওই ‘লক সিম্বল’ থাকবে।

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড ফোনে দ্বিপাক্ষিক ফোন কলে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন সেবা  চালু হবে বলে জানিয়েছে প্রযুক্তি বিষয়ক এই সাইটটি। চ্যাটিং ফিচার ‘এনাবল’ করা আছে গুগলের এমন সেবাগুলোতে মেসেজিং-এর ক্ষেত্রে এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন সেবা চালু আছে আগে থেকেই।

উল্লেখ্য, গুগল ফাই একটি এমভিএনও টেলিযোগাযোগ পরিষেবা, যা সেলুলার নেটওয়ার্ক এবং ওয়াই-ফাই ব্যবহার  করে টেলিফোন কল, এসএমএস এবং মোবাইল ব্রডব্যান্ড সরবরাহ করে। গুগল ফাই স্প্রিন্ট, টি-মোবাইল এবং মার্কিন সেলুলার দ্বারা পরিচালিত নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে।

Share.

Leave A Reply