fbpx

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের রাউন্ডে শ্রীলঙ্কা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে আট উইকেটের জয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সুপার-১২ এ শ্রীলঙ্কা। পরের রাউন্ডে লঙ্কানরা প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে গ্রুপ-১ এ অবস্থান করা ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, সাউথ আফ্রিকা, অস্ট্রেলিয়া এবং বাংলাদেশকে। রবিবার (২৪ অক্টোবর) নিজেদের প্রথম ম্যাচে লঙ্কানদের প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ।

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের রাউন্ডে শ্রীলঙ্কা

লঙ্কানদের বোলিং তোপে ৪৪ রানেই থেমেছে ডাচদের ইনিংস।

নিজেদের শেষ ম্যাচে টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেদারল্যান্ডস। প্রথম ওভারেই প্যাভিলিয়নের পথে আগের দুই ম্যাচেই অর্ধশতক তুলে নেওয়া ম্যাক্স ও’ডাউড।

কথিত আছে, দিনের শুরুটাই নাকি বলে দেয় দিনটা কেমন যাবে। নেদারল্যান্ডসের ক্ষেত্রেও হয়েছে তাই। প্রথম ওভারেই উইকেট হারানো নেদারল্যান্ডস পাওয়ারপ্লেতে হারিয়েছে আরো ৫টি উইকেট। অলআউট হওয়ার আগে কলিন অ্যাকারমেনের ১১ এবং বেন কুপারের ১০ রানের সৌজন্যে কোন রকমে স্কোরবোর্ডে তুলতে পেরেছে ৪৪ রান, খেলতে পেরেছে মোটে দশটা ওভার। লঙ্কানদের হয়ে তিনটি করে উইকেট নিয়েছেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা এবং লাহিরু কুমারা।

গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই পরের রাউন্ডে শ্রীলঙ্কা

দু’জনে নিয়েছেন তিনটি করে উইকেট।

একটা সময়ে মনে হচ্ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ইতিহাসেরই সর্বনিম্ন রানে অলআউট হতে যাচ্ছে ডাচরা; কিন্তু তা হয়নি। সর্বনিম্ন রানে অলআউট না হলেও নেদারল্যান্ডস জায়গা করে নিয়েছে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে। অবাক করে দেওয়ার মতো ব্যাপার হলো, তালিকার শুরুতেও ডাচরাই। ২০১৪ সালে চট্টগ্রামে ৩৯ রানেই গুটিয়ে গিয়েছিল নেদারল্যান্ডস। সেই ম্যাচেও প্রতিপক্ষ ছিল লঙ্কানরাই।

৪৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সাত ওভারে দুই উইকেট হারিয়েই জয়ের বন্দরে পৌঁছে গেছে শ্রীলঙ্কা। লঙ্কানদের হয়ে অপরাজিত ৩৩* রান করেছেন কুশল পেরেরা। শূন্য রানেই প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন পাথুম নিশানকা। ১২ রানে একটি উইকেট নিয়েছেন ব্রেন্ডন গ্লোভার।

Share.

Leave A Reply