fbpx

ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে সারা দেশে ৪৮.৭ শতাংশ মোবাইল টাওয়ার বন্ধ

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

ঘূর্ণিঝড় রিমালের ফলে বিদ্যুৎ বিভ্রাটের কারণে সারা দেশের ৪৮ শতাংশ মোবাইল টেলিকম টাওয়ার পরিষেবা বন্ধ করতে হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি)।

সোমবার বিকাল ৪টা নাগাদ দেশজুড়ে বিস্তৃত নেটওয়ার্কের সঙ্গে ৬৪ জেলার ৪৫ হাজার ৬১০টি টেলিকম টাওয়ারের মধ্যে ৪৮.৭১ শতাংশ বা ২২ হাজার ২১৮টি টাওয়ারের সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি। এদিন সকাল ৯টায় থেকে ২৮ শতাংশ টাওয়ারের সঙ্গে দেশের নেটওয়ার্কের সংযোগ বিচ্ছিন্ন ছিল।

জরুরি ভিত্তিতে এসব টাওয়ারে বিদ্যুৎ সংযোগ পুনরায় স্থাপনে সোমবার (২৭ মে) পিডিবি, ডিপিডিসি ও বিআরইবিকে চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বিটিআরসির সোমবার বিকেলের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী-রবিবার (২৬ মে) রাত ১০টার দিকে ৪৫ জেলায় ৩২ শতাংশ মোবাইল টাওয়ার অচল হয়ে পড়েছিল। পরে এ নিয়ে কাজ শুরু করে কর্তৃপক্ষ। সোমবার দুপুর নাগাদ ৪ শতাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করে পুনরায় কিছু টাওয়ার সচল করা হয়। বর্তমানে ৮ হাজার ৪১০টি টাওয়ার নেটওয়ার্ক বিচ্ছিন্ন।

মোবাইল নেটওয়ার্ক টাওয়ার স্টেশনগুলোতে ৬-৮ ঘণ্টা ব্যাটারি ব্যাকআপের সক্ষমতা ফুরিয়ে যাওয়ায় টাওয়ার অপারেটররা পোর্টেবল জেনারেটর দিয়ে পরিষেবা চালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে সেই কাজও কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে জানান রবি আজিয়াটার চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার মোহাম্মদ শাহেদুল আলম।

টেলিকম কর্মকর্তা বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলোর বেশিরভাগ অঞ্চলে গ্রিডের বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হতে মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। তাই মোবাইল টাওয়ারগুলোর জন্য বিদ্যুতের একমাত্র উৎস হতে পারে জেনারেটর।

দুর্যোগ-পরবর্তী পুনরুদ্ধার নিশ্চিতে সহায়তা করার জন্য যত দ্রুত সম্ভব বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করতে বিদ্যুৎ অপারেটরদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে টেলিকম নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

বিটিআরসির তথ্যমতে, দেশের কম ক্ষতিগ্রস্ত উত্তরাঞ্চলের অন্তর্ভুক্ত রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগে তুলনামূলকভাবে বেশিসংখ্যক টাওয়ার চালু রয়েছে। বিপরীতে বরিশাল, খুলনা, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের জেলাগুলোতে টাওয়ার চালু আছে কম।

৯৩টি টাওয়ারের মধ্যে ৮৩ শতাংশ টাওয়ারের পরিষেবা বন্ধ থাকায় রাঙ্গামাটিতে সবচেয়ে বেশি সমস্যা দেখা গেছে, আর জেলা হিসেবে সিলেটে সবচেয়ে বেশি ৯৩ শতাংশ টাওয়ার সক্রিয় রয়েছে।

Advertisement
Share.

Leave A Reply