fbpx

টফিতে একসাথে বিশ্বকাপ ফাইনাল দেখেছেন দেড় কোটির বেশি মানুষ

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

ফিফা বিশ্বকাপ কাতার ২০২২-এর প্রায় ১০০ কোটি ভিউ নিয়ে, নতুন এক মাইলফলক অর্জন করেছে টফি। টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচটি দেখতে প্রায় ১.৫৫ কোটি দর্শক একত্রিত হয়েছিল টফিতে। গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

গত ১৮ নভেম্বর থেকে কাতারে শুরু হয় এবারের বিশ্বকাপ। সেই থেকে শুরু করে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত সবগুলো ম্যাচ দেখানো হয় টফিতে। এই আসরেই বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো লক্ষ লক্ষ দর্শক এই ফুটবলের আসর দেখার জন্য ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম টফিকে বেছে নেয়, যা আগে সম্প্রচার করা হতো শুধু টিভিতে।

বাংলালিংক ফিফা বিশ্বকাপ কাতার ২০২২TM এর একমাত্র লাইসেন্সপ্রাপ্ত মোবাইল সম্প্রচারকারীর স্বত্ব গ্রহণ করে। বাংলালিংক-এর ডিজিটাল বিনোদনের অ্যাপ টফিতে এই সকল ম্যাচ উপভোগ করে ফুটবলপ্রেমীরা। এছাড়া ভিশন, ওয়ালটন এবং র‌্যাংগস এর মতো শীর্ষস্থানীয় স্মার্ট টিভি ব্র্যান্ডগুলির সাথে চুক্তিবদ্ধ হয় টফি।

বিকাশ বাংলালিংক-এর পেমেন্ট ও অ্যাডভার্টাইজিং পার্টনার হিসেবে সহযোগিতা করেছ, এবং টফি-তে দর্শকদের জন্য আকর্ষণীয় প্যাকেজ অফার করেছে। বাংলালিংক স্ট্রিমিং স্কেলেবিলিটি ,এবং অরগ্যানিক সার্চ রেজাল্টের জন্য গুগল-এর সহযোগিতাও নিয়েছে। এছাড়া বাংলালিংক ফাইনাল ম্যাচের দিন কনসার্টসহ একটি ফুটবল উৎসবের আয়োজন করে, যাতে অংশগ্রহণ করে হাজার হাজার ফুটবল ফ্যান।

বাংলালিংক-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এরিক অস বলেন, “ভবিষ্যৎমুখী একটি ডিজিটাল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে আমরা মানুষের খেলা দেখার ধরনে যে পরিবর্তন এসেছে, সেটিকে বিবেচনা করেছি। আমরা দর্শকদেরকে নিজেদের মতো করে খেলা উপভোগের সুযোগ দিয়েছি টফি-তে। দর্শকদের এই বিপুল সাড়া ডিজিটাল অপারেটর হিসাবে আমাদের অগ্রযাত্রার আরও একটি প্রতিফলন। আমরা সব দর্শক, অংশীদার এবং বিজ্ঞাপনদাতাদের আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই। তাদের উৎসাহ এবং সমর্থন টফি-এর এই প্রচেষ্টাকে সফল করেছে। এই সাফল্য সামনের দিনগুলিতে টফি-তে আরও উন্নত মানের কনটেন্ট নিয়ে আনতে উৎসাহিত করবে।”

Advertisement
Share.

Leave A Reply