fbpx

টানা দুই ম্যাচে হেরে কোহলি যুগের শেষের শুরু!

Pinterest LinkedIn Tumblr +

টানা দুই ম্যাচে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কায় ভিরাট কোহলির দল। সেমিফাইনাল খেলতে হলে বাকি তিন ম্যাচে জিততে হবে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলেই। প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০ উইকেটে হার, দ্বিতীয় ম্যাচে কিউইরা হারিয়েছে ৮ উইকেটে। হচ্ছেটা কি ভারতীয় দলে, সেটা বোধহয় জানেন না খোদ রবি শাস্ত্রিও!

বিশ্বকাপ শেষে দলের অধিনায়কের ভূমিকা থেকে সরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত আগেই দিয়ে রেখেছিলেন কোহলি। কোচের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন স্বয়ং ভারতীয় কোচও। এমনকি, সহকারি কোচরাও দিয়ে রেখেছেন ইঙ্গিত। সরে দাঁড়ানোটা স্বাভাবিক, সম্মানের সাথেই তো সরে দাঁড়ানো উচিত। কিন্তু, হঠাৎ করেই ভারতীয় ক্রিকেটে নেমে আসবে এমন অন্ধকার, তা কি ভেবেছিলেন কেউই! বিশ্বকাপের মাঝপথে এসে পয়েন্ট তালিকার শেষ থেকে দুই নম্বরে ভারত; এ তো অধিনায়ক কোহলি যুগের সমাপ্তিরই শুরু!

টানা দুই ম্যাচে হেরে কোহলি যুগের শেষের শুরু!

শাস্ত্রির চোখ মুখ জুড়েও হতাশা।

চমক দিয়েই শুরু করেছিল মেন ইন ব্লুরা, কিন্তু শেষ অব্দি তাদেরই চমকে দিয়েছে নিউজিল্যান্ড বোলিং লাইনআপ। কিউইদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে কোণঠাসা ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ পুরো ম্যাচ জুড়েই ছিল যাওয়া-আসার মিছিলে। অথচ, বিশ্বকাপ শুরুর আগে ধারণা করা হচ্ছিল, সবচেয়ে ভালো প্রস্তুতিটা হয়েছে কোহলির দলেরই। আইপিএলের অবশিষ্ট অংশের পুরোটাই যে রোহিত-পান্ডিয়ারা খেলেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাঠগুলোতেই! তবুও, ব্যাটিংয়ের এমন দুর্দশা! দায়ভার কার?

টানা দুই ম্যাচে হেরে কোহলি যুগের শেষের শুরু!

ম্যাচের শুরু থেকেই দেখা গেছে কিউইদের উদযাপন।

দলের মেন্টরের ভূমিকায় সর্বকালের সেরা অধিনায়কদেরই একজন মহেন্দ্র সিং ধোনি। এরপরেও কাটছে না দলের দুঃসময়। পুরো ইনিংসে সর্বোচ্চ ২৬ রান এসেছে রবীন্দ্র জাদেজার ব্যাট থেকে, ২৩ রান করেছেন হার্দিক পান্ডিয়া। দু’জনের ব্যাটে ভর করেই একশ’ পেরিয়েছে ভারত, নির্ধারিত ২০ ওভারে স্কোরবোর্ডে তুলেছে ১১০ রান।

ম্যাচ জিততে হলে কিউইদের প্রয়োজন ছিল একটা সুন্দর শুরু আর ভারতের প্রয়োজন ছিল আক্রমণাত্মক ক্রিকেটের সাথে নিয়ন্ত্রিত বোলিং। জাসপ্রিত বুমরাহ একপ্রান্ত থেকে কাজটা ঠিকঠাক করলেও পারেননি স্পিনাররা। দলকে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেয়া গাপটিল ব্যক্তিগত ২০ রানে ফিরলেও পাওয়ারপ্লে শেষে কিউইদের সংগ্রহটা তাই ৪৪!

টানা দুই ম্যাচে হেরে কোহলি যুগের শেষের শুরু!

অর্ধশতক থেকে এক রান দূরে থেকে ফিরেছেন প্যাভিলিয়নে।

গাপটিল ফিরলেও, তার দেখানো পথেই হেঁটেছেন মিচেল, খেলেছেন আক্রমণাত্মক ক্রিকেট। কিন্তু, আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে নিজের প্রথম অর্ধশতক থেকে মাত্র এক রান দূরে থেকেই ফিরেছেন প্যাভিলিয়নে। কিউই ওপেনারকে যোগ্য সঙ্গ দেয়া অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন দলকে জিতিয়েই ছেড়েছেন মাঠ; অপরাজিত ছিলেন ৩৩* রানে। পাকিস্তানের পর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও অসহায় আত্মসমর্পন ভারতীয় বোলারদের।

টানা দুই ম্যাচে হেরে কোহলি যুগের শেষের শুরু!

ভারতের হার যেন মানতেই পারছেন না সমর্থকেরা।

ম্যাচ জয় তখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। সেটা বুঝে গিয়েছিলেন ভক্ত-সমর্থকেরাও। তাই, চোখে-মুখে হতাশা স্পষ্ট, চোখ বেয়ে পানিটাই নেমে আসা বাকি মাত্র। লড়াকু কোহলি যেন হারটা মানতে পারছেন না, মুখে হাত রোহিতের! সাদা বলের ক্রিকেটে শেষ কবে এমন দৃশ্য দেখেছিল ভারতীয় ক্রিকেট, সেটাও চিন্তার বিষয়। ২০১৯ বিশ্বকাপে কিউইদের বিপক্ষে হেরে হয়েছিল বিদায়, এবারেও কি বিদায়ের কারণ হবে এই নিউজিল্যান্ডই!

Share.

Leave A Reply