fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৩০শে নভেম্বর ২০২২ | ১৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

টিকাদান কেন্দ্রে নিবন্ধন নিয়ে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবে, এমনকি নিবন্ধনহীনদের তথ্য রেখে করোনাভাইরাসের টিকা দেয়া হবে, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রেক্ষিতে পুরোপুরি ভিন্ন বক্তব্য পাওয়া গেল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে। অধিদপ্তর জানায়, টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন করা নিয়ে নানা ধরণের বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। সেখানে স্বাস্থ্যকর্মীরা নিবন্ধনে সহায়তা করলেও সাথে সাথেই টিকা নেওয়া যাবে, তা নয়।

রবিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সারাদেশে শুরু হয়েছে গণটিকাদান কর্মসূচি। তার আগে, শনিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ সম্মেলনে অধিদপ্তরের মুখপাত্র ও রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার লাইন ডিরেক্টর ডা. নাজমুল ইসলাম জানান, যারা রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন না, তাদেরকে দেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও হাসপাতালগুলোতে যেসব স্বাস্থ্যকর্মীরা আছেন যাদের কাছে ট্যাব, ইন্টারনেটসহ সিম কার্ড আছে, তারা তাদের রেজিস্ট্রেশনে সহায়তা করবেন। কিন্তু, তার অর্থ এই না যে ওই মুহূর্তে রেজিস্ট্রেশন করে তখনই টিকা নিতে পারবেন।

ডা. নাজমুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্যকর্মীরা শুধু রেজিস্ট্রেশনের প্রক্রিয়ায় সাহায্য করবে। নিবন্ধনের পর টিকা দেয়ার সময় ও তারিখ জানিয়ে দেয়া হবে।

তার আগে টিকা নিবন্ধনের বিষয় নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছিলেন, কেন্দ্র থেকে কাউকে ফেরত দেয়া হবে না। নিবন্ধন করিয়ে টিকা দিয়ে দেওয়া হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘স্যার (স্বাস্থ্যমন্ত্রী) যা বলেছেন, সেই কথাটি যদি খুব সহজ করে দেখেন, ওই দিন ফেরত দেওয়ার মানে (রেজিস্ট্রেশনের দিন) কিন্তু তাকে টিকাদান থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে এমন নয়।’

নিবন্ধন ছাড়াই টিকা দেয়া হলে কী ধরণের সমস্যা হতে পারে সে বিষয়ে ডা. নাজমুল বলেন, নিবন্ধন না করে টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণের পর দ্বিতীয় ডোজ কখন পাবে তা নিয়ে ঝামেলা হতে পারে। এইভাবে টিকা দেয়া হলে বহু মানুষ পরবর্তীতে হারিয়ে যাবে। ফলে যথাযথ নিয়মে সময়মতো টিকা নেয়ার যে কার্যক্রম, তা ব্যাহত হবে।

তিনি আরো বলেন, সরকারের ‘সুরক্ষা’ প্ল্যাটফর্মে নিবন্ধন করার পর সেখানে দেওয়া মোবাইল নাম্বারে এসএমএসের মাধ্যমে টিকা গ্রহণের তারিখ ও কেন্দ্র জানিয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি, যথাসময়ে দ্বিতীয় ডোজের কথাও এসএমএসেই জানিয়ে দেওয়া হবে। নিবন্ধনের এই প্রক্রিয়ার বাইরে না যাওয়ার কথা এর আগেই জানিয়েছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশীদ আলম, এ কথাও আবারো মনে করিয়ে দিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তা ডা. নাজমুল।

Advertisement
Share.

Leave A Reply