fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৭ই ডিসেম্বর ২০২২ | ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

ঢাকা উত্তরের মেয়রের কাছে ৪২৯ অভিযোগ!

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন মেয়রের কাছে একমাসে ৪২৯টি অভিযোগ জানিয়েছে নগরের বাসিন্দারা। ‘সবার ঢাকা’ অ্যাপের মাধ্যমে নগরের বিভিন্ন ভোগান্তি সম্পর্কিত অভিযোগ জানান তারা।

৪২৯টি অভিযোগের মধ্যে সর্বোচ্চ ১১৩টি অভিযোগ সড়ক মেরামত ও ম্যানহোল বিষয়ক। ৯৪ টি সড়কবাতি স্থাপন ও মেরামত, অবৈধ স্থাপনার ৭৮ টি অভিযোগ, মশার উপদ্রব সংক্রান্ত ৫৭, ময়লা-আবর্জনা বিষয়ক ৪৬, নর্দমা সম্পর্কিত ৩৫ টি অভিযোগ এবং জলাবদ্ধতা নিয়ে পাওয়া ৩টি অভিযোগ মিলে মোট ৪২৯ টি অভিযোগ আসে উত্তর সিটির কাছে। তার মধ্যে ৩১৮টি অভিযোগের সমাধান করেছে ডিএনসিসি। অভিযোগ অনুসারে সমাধানের হার ৭৪ শতাংশ।

উল্লেখ্য, ১০ জানুয়ারি উদ্বোধন করা হয় ‘সবার ঢাকা’ নামের অ্যাপটি। উদ্বোধনের দিন থেকে ৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার মোট একমাসের পরিসংখ্যান তুলে ধরে উত্তর সিটি করপোরেশন। এই এক মাসে ৪ হাজার ৭৩ জন অ্যাপটি ডাউনলোড করেছে এবং ৪২৯ জন অভিযোগ পাঠিয়েছে বলে জানায় ডিএনসিসি।
উত্তরের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম জানিয়েছেন, ‘ডিএনসিসির সকল সেবা সহজে নাগরিকদের হাতের মুঠোয় পৌঁছানোর লক্ষ্যে ‘সবার ঢাকা’ অ্যাপটি চালু করা হয়েছে।
নগরবাসীর কাছে আরো জনপ্রিয় করার লক্ষ্যে অ্যাপটি সম্পর্কে প্রচারাভিযান পরিচালনা করা হবে।’

সমাধানকৃত কয়েকটি অভিযোগ নিম্নরূপ
অভিযোগ-১
১৫ নম্বর ওয়ার্ডের মানিকদী বাজার রোডে একটি ম্যানহোলের ঢাকনা খোলা নিয়ে অভিযোগ করেন একজন নগরবাসী। ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ অভিযোগটি তাৎক্ষণিকভাবে সমাধান করে।

ঢাকা উত্তরের মেয়রের কাছে ৪২৯ অভিযোগ!

মানিকদী বাজার রোডে ম্যানহোলের ঢাকনা ছিলো না। অভিযোগ পাবার পর তাৎক্ষণিক সমাধান করা হয়। ছবি: মেয়র অফিস

অভিযোগ-২
৫ নম্বর ওয়ার্ডের আদাবর থেকে মনসুর রেজা নামের একজন জানান, তার এলাকায় একটি সড়ক বাতি দীর্ঘদিন ধরে নষ্ট আছে। অভিযোগটি আমলে নিয়ে দ্রুত সমাধান করে উত্তর সিটি।

 

অভিযোগ-৩
২৮ নম্বর ওয়ার্ডের সাইফুর রহমান চৌধুরী অভিযোগ করেন, আগারগাও এলাকায় সড়কে ময়লা-আবর্জনার স্তুপ জমে থাকে, দেখার কেউ নেই। সেটিও দ্রুততার সাথে সমাধানের কথা জানায় ডিএনসিসি।

ঢাকা উত্তরের মেয়রের কাছে ৪২৯ অভিযোগ!

অভিযোগ পাবার পর আগারগাঁও এর ময়লার স্তুপ পরিষ্কার করা হয়। ছবি: মেয়র অফিস

অভিযোগ-৪
১২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর টোলারবাগের একজন নাগরিক নর্দমায় ময়লা সম্পর্কে অভিযোগ করেন, যা ডিএনসিসি একদিনের মধ্যে অপসারণ করে।

অভিযোগ-৫
১৩ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মিরপুরের সবুজ আহমেদ অভিযোগ করেন, জনতা হাউজিংয়ে সড়কের মুখে দীর্ঘদিন ধরে একটি গেট বন্ধ থাকায় চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে। অভিযোগের তিন দিনের মধ্যে গেটটি খুলে দেয় ডিএনসিসি কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা উত্তরের মেয়রের কাছে ৪২৯ অভিযোগ!

জনতা হাউজিং এর সড়কের মুখের গেটটি খুলে দেয়া হয় অভিযোগ পাবার পর। ছবি: মেয়র অফিস

Advertisement
Share.

Leave A Reply