fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৭ই ডিসেম্বর ২০২২ | ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

দেশের সব প্রয়োজনে পাশে দাঁড়িয়েছে পুলিশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, করোনায় মারা যাওয়া লাশের দাফন থেকে শুরু করে জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনসহ যখনই প্রয়োজন তখন ডিএমপির সদস্যরা পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, যেখানে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে সন্তান তার বাবার লাশ নিতে চায় না, সেখানে লাশ দাফন করেছে পুলিশ।

১৪ ফেব্রুয়ারি রাজারবাগ পুলিশ লাইনস মিলনায়তনে ডিএমপির ৪৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘পাশের দেশ ভারতে আমন্ত্রণে গেলে সেখানকার প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ পুলিশের প্রশংসা করেন।’

অনুষ্ঠানে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘১৯৭৬ সালে ডিএমপি প্রতিষ্ঠা হয়। এই দীর্ঘ যাত্রায় ডিএমপির অনেক সাফল্য গাঁথা আছে। ২০১৩ সালের ৫ মে মতিঝিলের শাপলা চত্বরে সফলতার সঙ্গে বিনা রক্তপাতে ডিএমপি হেফাজতের তাণ্ডব মোকাবিলা করেছে। এ ছাড়া ২০১৬ সালের ১ জুলাই গুলশানে হোলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে ডিএমপির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। করোনার ঝুঁকি নিয়ে পুলিশ বাহিনী আইনশৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি দেশবাসীকে সেবা দিয়েছে। করোনায় এ নিয়ে পুলিশ বাহিনীতে মারা যাওয়া ৮৫ জনের মধ্যে ২৬ জনই ডিএমপির।’

ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম জানান, দুর্যোগ, দুর্দিন, বিপদ-আপদে ডিএমপি সবসময় মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায়।

অনুষ্ঠানের একপর্যায়ে ৪৬ কেজি ওজনের কেক কেটে ডিএমপির ৪৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান উদ্‌যাপন করা হয়।

Advertisement
Share.

Leave A Reply