fbpx

দেশে করোনার ‘ইটা’ ধরন আরও দু’জনের শরীরে

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

নাইজেরিয়ায় শনাক্ত করোনার ধরন ‘ইটা’ দেশে আরও দু’জনের শরীরে পাওয়া গেছে। এদের একজন ৩২ বছর বয়সী ঢাকার বাসিন্দা এবং অপরজন ৩১ বছর বয়সী সিলেটের বাসিন্দা।

গতকাল মঙ্গলবার (৮ জুন) করোনাভাইরাসের জিনোমের উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার জার্মানির গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটার (জিসএআইডি) ওয়েবসাইটে বাংলাদেশে করোনার এ ধরন শনাক্তের খবর প্রকাশিত হয়েছে।

নতুন করে পাওয়া করোনাভাইরাসের ‘ইটা’ ধরনের নাম বি.১.৫২৫, যা নাইজেরিয়ার ধরন বলে পরিচিত। বাংলাদেশের গবেষণা প্রতিষ্ঠান চাইল্ড হেলথ রিসার্চ ফাউন্ডেশন এই ধরনটির গবেষণায় শনাক্ত ওই দুই ব্যক্তির নমুনা বিশ্লেষণ করেছে।

করোনার ‘ইটা’ ধরনটি প্রথম নাইজেরিয়াতে শনাক্ত হয় গত বছরের ডিসেম্বরে। এরপর তা যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স এবং অন্যান্য দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার সাথে সাথে বিশ্বের ৬০টি দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

বিজ্ঞানীরা জানান, তারা করোনার এই ধরনটির ঝুঁকি নিয়ে গবেষণা করছেন। বর্তমানে তারা এই ধরনটিকে পর্যবেক্ষণে  রেখেছেন। তবে, করোনার ইটা ধরনটির মধ্যে যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ‘তাৎপর্যপূর্ণ রূপান্তর’ (সিগনিফিকেন্ট মিউটেশন) পেয়েছেন।

এ নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসের পাঁচটি ধরন যুক্তরাজ্য, ব্রাজিল, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা, নাইজেরিয়া শনাক্ত হলো। তারমধ্যে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার এই ধরনগুলোর আলাদা আলাদা নামকরণ করেছে। যেমন, যুক্তরাজ্যের ধরনকে আলফা, ব্রাজিলের ধরনকে গামা, ভারতীয় ধরনকে ডেল্টা, দক্ষিণ আফ্রিকার ধরনকে বিটা এবং নাইজেরিয়ার ধরনকে ইটা বলে নামকরণ করা হয়েছে।

Advertisement
Share.

Leave A Reply