fbpx

ধুমপায়ীদের করোনা সংক্রমণের হার এবং স্বাস্থ্যঝুঁকি বেশি, জানাচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

কে ভেবেছিলো এই দিন আসবে? এই মৃত্যু উপত্যকা আমাদের দেখতে হবে? এক কঠিন সময় পার করছে গোটা বিশ্ব। প্রতিদিন কোভিড আক্রান্তদের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। আমাদের দেশের মানুষও পার করছে ভয়াবহ সময়। সব বয়সীরাই কোভিড আক্রান্ত হচ্ছেন, সেরেও উঠছেন অনেকেই। যারা একটু বয়স্ক এবং আগে থেকেই শরীরে নানা রোগ বাসা বেধেছিলো, তাদের মৃত্যুহারই বেশি। তবে যারা স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করেন, তারা সেরে উঠছেন।

এ বিষয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিওএইচও) একটি তথ্য দিয়েছেন। তাদের তথ্য অনুযায়ী, ধুমপান করলে কোভিড সংক্রমণের আশঙ্কা এবং তার ভয়াবহতা বেশি। যারা ধুমপান করেন না, তাদের থেকে অনেক বেশি সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে ধুমপায়ীদের।

কেনো এমনটা মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা?

ধুমপান করার সময় আঙুল মুখ এবং নাকের খুব কাছে চলে আসে। এ সময়  যদি করোনাভাইরাস হাতে থেকে থাকে, তবে খুব সহজেই হাত থেকে নাক এবং মুখে তা প্রবেশ করতে পারে। এছাড়া, বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ধুমপায়ীদের দল বেধে ধুমপান করতে দেখা যায়, যা সংক্রমণের সম্ভাবনাকে আরও বাড়িয়ে দেয়।

ধুমপায়ীদের নিয়ে আরও একটি বিষয় বিশেষজ্ঞদের ভাবাচ্ছে। তা হচ্ছে, ধুমপায়ীদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং ফুসফুসের দুরাবস্থা। সমীক্ষাতে দেখা গিয়েছে যারা ধুমপান করেন, তাদের শরীরে করোনার প্রভাব মারাত্মক। কারণ করোনা ভাইরাসের কবলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয় ফুসফুস। আর ধুমপান করার ফলে আগে থেকেই ফুসফুস অনেক দুর্বল হয়ে থাকে। তাই করোনাও সহজেই ফুসফুসে থাবা বসায়। তাছাড়া, দীর্ঘদিন ধরে ধুমপান করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমে আসে। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, সেই সুযোগে শরীরে সহজেই বাসা বাঁধতে পারে করোনা।

Share.

Leave A Reply