fbpx

নাইম-মুশফিকে দুর্দান্ত বাংলাদেশ!

Pinterest LinkedIn Tumblr +

শ্রীলঙ্কাকে পেলে এমনিই জ্বলে ওঠে তার ব্যাট, আজকেও ব্যতিক্রম হলো না। মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ফিফটি এবং এর আগে নাইম শেখের হাল ধরা ফিফটির কল্যাণে সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে বড় রান তুলেছে বাংলাদেশ। ২০ ওভার শেষে বাংলাদেশের রান ৪ উইকেটে ১৭১।

টসে জিতে ব্যাটিং নেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দুই ওপেনার নাইম শেখ ও লিটন দাসের ব্যাটে পাওয়ারপ্লেতে ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিলো বাংলাদেশ। তবে, দু’জনে ৪০ রানের জুটি গড়ার পর ষষ্ঠ ওভারের শেষ বলে লাহিরু কুমারার বলে মিড অনে ক্যাচ দিয়ে ১৬ রানে আউট হন লিটন দাস। আউটের পর লাহিরু কুমারার সাথে কি কারণে যেন ছোটখাটো খন্ডপ্রলয় বেঁধে গিয়েছিলো ক্লাসি ওপেনারের্ তবে, আম্পায়ারের সমঝোতায় সেটা বাড়েনি।

লিটনের আউটের পর নেমে কি দুর্দান্ত শুরুই না করেছিলেন সাকিব আল হাসান। চারিথ আসালাঙ্কাকে যেভাবে এক ওভারে সপাটে দু’টি বাউন্ডারি হাঁকালেন, মনেই হচ্ছিলো আগের ম্যাচ যেখানে শেষ করেছেন সেখান থেকেই শুরু করবেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। তবে শুরুটা সেদিনের মতো বড় হলো না আজ। পরের ওভারেই চামিকা করুনারত্নের বলের লেংথ না বুঝতে পেরে বোল্ড হয়ে ৭ বলে ১০ করে ফিরে গেলেন সাকিব।

দ্রুত দুই উইকেটের পতনে যে শঙ্কাটা তৈরি হয়েছিল, তা উড়িয়ে দেন নাইম শেখ ও মুশফিকুর রহিম। শুরু থেকেই একপ্রান্তে হাল ধরে ছিলেন নাইম, ধীরস্থির শুরু করে তুলে নেন টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে নিজের চতুর্থ ও এই বিশ্বকাপে দ্বিতীয় ফিফটি। বিনুরা ফার্নান্দোর বলে আউট হওয়ার আগে খেলেছেন ৫২ বলে ৬২ রানের ইনিংস।

আরেক প্রান্তে, রানের চাকা একমুহুর্তের জন্যও থামতে দেননি মুশফিক। শ্রীলঙ্কাকে পেলে এমনিই জ্বলে ওঠে তার ব্যাট, আজকেও ব্যতিক্রম হলো না। লঙ্কান বোলারদের বেদম পিটিয়ে মাত্র ৩২ বলে ফিফটি তুলে নিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। চারটি চারের পাশাপাশি মেরেছেন দু’টি বিশাল ছক্কা। এটি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুশফিকের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ফিফটি।

ফিফটির পর মুশফিকুর রহিম।

মুশফিকের অপরাজিত ৫৭* রানের পাশাপাশি স্লগ ওভারে মাহমুদউল্লাহর ৫ বলে ১০* রানের কল্যাণে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৭১ রান তুলে ইনিংস শেষ করেছে বাংলাদেশ।

Share.

Leave A Reply