fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৫ই ডিসেম্বর ২০২২ | ২০শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগ তদন্ত করছে পুলিশ

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

জনপ্রিয় অভিনেত্রী পরীমনিকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছিল। গতকাল তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে সরব হন। তারপরই দেশের সব সংবাদমাধ্যম ছুটে যায় পরীর বাসায়। সেখানে পরীর করা অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। পরীমণির সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিযোগের বিষয়ে একটি লিখিত এজাহার নেওয়ার জন্য থানা পুলিশকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

পুলিশের গুলশান বিভাগের উপ-কমিশনার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী বলেন, পরীমণির দেওয়া স্ট্যাটাস ও প্রেস ব্রিফিং আমাদের নজরে এসেছে। যেহেতু তার বাসা বনানী এলাকায় এবং ঘটনাস্থল রূপনগর থানাধীন ঢাকা বোট ক্লাব। সেহেতু তিনি রূপনগর বা বনানী থানার কোনও একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। আমরা পুলিশের মিরপুর বিভাগের সঙ্গে সমন্বয় করে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

রবিবার (১৩ জুন) পরীমণি তার ফেসবুক পেজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ‘মা’ সম্বোধন করে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে অভিযোগ করেন, এক ব্যক্তি তাকে ধর্ষণ ও হত্যার চেষ্টা করেছিল। এ বিষয়ে তিনি চার দিন আগে বনানী থানায় গিয়ে অভিযোগ দিতে চাইলেও থানা পুলিশ তা নেয়নি। এজন্য তিনি বিষয়টিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে পরী জানান, একটি মিটিংয়ে তিনি চার দিন আগে বোট ক্লাবে গিয়েছিলেন। সেখানে নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি উত্তরা ক্লাবের প্রেসিডেন্ট পরিচয় দিয়ে তার সঙ্গে অশালীন আচরণ ও তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে তাকে তরলজাতীয় কিছু খাইয়ে হত্যার চেষ্টাও করা হয়। সেখান থেকে তিনি বের হয়ে এসে থানায় গিয়ে অভিযোগ করলেও পুলিশ তা নেয়নি।

এ বিষয়ে পুলিশের গুলশান বিভাগের একজন কর্মকর্তা জানান, গত ৮ জুন রাত সাড়ে তিনটার দিকে পরীমণি বনানী থানায় গিয়েছিলেন। থানায় গিয়ে তিনি দায়িত্বরত কর্মকর্তাকে তার সঙ্গে অশোভনীয় আচরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ দায়ের করতে চান। কিন্তু এসময় তিনি কিছুটা অপ্রকৃতিস্থ ছিলেন। সুনির্দিষ্টভাবে অভিযোগ বলতে না পারা এবং এলোমেলো কথাবার্তা বলায় দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তারা তাকে সুস্থ হয়ে দিনের বেলায় আসতে বলেন। থানায় পরীমণি অসংলগ্ন আচরণ করতে থাকায় পুলিশের একটি দল তাকে সেখান থেকে এভার কেয়ার হাসপাতালে পৌঁছে দেয়। পরের দিন তিনি আর থানায় যাননি।

সূত্র জানায়, নায়িকা পরীমণি যার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন তার নাম নাসির ইউ মাহমুদ। তিনি একজন ব্যবসায়ী ও উত্তরা ক্লাবের সাবেক সভাপতি। বর্তমানে তিনি ঢাকা বোট ক্লাবের পরিচালক (কালচার অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এ বিষয়ে আরও জানতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন-

Advertisement
Share.

Leave A Reply