fbpx

পানি পানে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে

Pinterest LinkedIn Tumblr +

অনেকেই আছেন যারা ওজন কমাতে চাইছেন, ডায়েট মেনে চলছেন, কিন্তু ওজন কমছে না। আপনাদের জন্য আছে সুখবর। শুধুমাত্র নিয়মিত পানি পান করলেই ওজন অনেকটাই কমে যাবে। পর্যাপ্ত পানি পান করলে বিপাকীয় হার অনেকটাই বেড়ে যায়। এর ফলে জমে থাকা মেদ ও বাড়তি ক্যালোরি কমানো সম্ভব বলে মত পুষ্টিবিদদের।

সমীক্ষায় জানা যায়, যে কোনও খাবার খাওয়ার ১৫ মিনিট আগে ৪০০–৫০০ মিলিলিটার পানি পান করতে হবে। তাতে বিপাকীয় হার ২৫–৩০ শতাংশ বেড়ে যায়। বিপাকীয় হার বাড়লে এক দিকে মেদ জমা বন্ধ হবে, অন্যদিকে বাড়তি মেদও কিছুটা ঝরবে।

রোজকার ভাত, ডাল, মাছের মতো পানিও আমাদের শরীরে অত্যন্ত প্রয়োজনীয় উপাদান। পর্যাপ্ত পানি পান করলে আমাদের বিএমআর অর্থাৎ বেসাল মেটাবলিক রেট বেড়ে যায়। ফলে দ্রুত ক্যালোরি খরচ হয়। ফলে মেদ জমতে পারে না। উপরন্তু, বাড়তি মেদ কিছুটা ঝরে যায়।

যারা নিয়ম করে গরমকালে ২ থেকে ২.৫ লিটার পানি পান করেন, তাদের কোমরের মাপ কিছুটা কমে। ফলে বডি মাস ইন্ডেক্স অর্থাৎ বিএমআইও কমে যায়। পানিতে কোনও ক্যালোরি থাকে না, কিন্তু পানি পান করলে শরীরের ক্যালোরি খরচ করে পানি শোষিত হয়। এতে বাড়তি মেদ ঝরে।

একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, যে কোনও খাবার খাওয়ার ৩০ মিনিট আগে যদি ৫০০ মিলিলিটার পানি পান করা যায়, তা হলে ১২ সপ্তাহের মধ্যে ২ কেজি মেদ ঝরে যাবে।

সকালে উঠে খালি পেটে পানি পান করলে খাবারের চাহিদা ১৩ শতাংশ কমে যায়। যারা ঘন ঘন চা-কফি বা শরবত খান, তাদেরও ওজন বাড়ার ঝুঁকি থাকে। অন্যান্য পানীয়ের পরিবর্তে শুধু পানি পান করলে ওজন ঠিক থাকবে।

শরীর সুস্থ রাখতে পানি পানের কোনো বিকল্প নেই। আর এখন তো জানলেন, পানি পানে আপনার ওজনও নিয়ন্ত্রণে থাকবে। তাই খাবার নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি পানি পানের পরিমাণ বাড়িয়ে দিন।

Share.

Leave A Reply