fbpx

প্রশংসিত ‘মায়ার জঞ্জাল’, একসঙ্গে মুক্তি দুই বাংলায়

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

বাংলাদেশ ও কলকাতায় আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি একসঙ্গে মুক্তি পাচ্ছে যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ছবি ‘মায়ার জঞ্জাল’। ইতোমধ্যে ছবিটি নিয়ে দুই বাংলায় ব্যাপক সাড়া পড়েছে। দর্শকদের মধ্যে এই চলচ্চিত্র দেখার তুমুল আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। সব মিলিয়ে বছরের অন্যতম আলোচিত ছবির তালিকায় এটি জায়গা করে নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

‘ফড়িং’ খ্যাত ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী পরিচালিত ‘মায়ার জঞ্জাল’ ছবির মাধ্যমে ১৯ বছর পর আবারও বড় পর্দায় হাজির হতে চলেছেন অভিনেত্রী অপি করিম। তার বিপরীতে আছেন ওপার বাংলার অভিনেতা ঋত্বিক চক্রবর্তী। গত ২০ ফেব্রুয়ারি ঢাকার সনি স্কয়ারে স্টার সিনেপ্লেক্সে ছবিটির বিশেষ প্রদর্শনীতে অংশ নিতে ঢাকায় এসেছিলেন ঋত্বিক। অতিথি তালিকায় দেশের বিভিন্ন অঙ্গনের তারকারা ছিলেন। দুর্দান্ত অভিনয়, চমৎকার গল্প গাঁথুনি এবং নির্মাণের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন তারা।

প্রযোজক জসীম আহমেদ জানিয়েছেন, আজ (২২ ফেব্রুয়ারি) কলকাতার নন্দনে ছবিটির আরেকটি বিশেষ প্রদর্শনীতে থাকবেন তিনি। এখানে প্রেস মিটে অংশ নেবেন ছবিটির অভিনয়শিল্পী সোহেল মণ্ডল, ঋত্বিক চক্রবর্তী, ব্রাত্য বসু, চান্দ্রেয়ী ঘোষ, কমলিকা ব্যানার্জি এবং পরিচালক ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ভিউজ অ্যান্ড ভিশনস জানিয়েছে, ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার প্রেক্ষাগৃহে উপভোগ করা যাবে ‘মায়ার জঞ্জাল’। ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্স, যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টার সিনেমাস, শ্যামলী, কেরানীগঞ্জের লায়নস, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ, চট্টগ্রামের সুগন্ধা ও সিলভার স্ক্রিন, সাভারের সেনা অডিটোরিয়াম, বগুড়ার মধুবন, রংপুরের শাপলা, ময়মনসিংহের ছায়াবাণী, খুলনার লিবার্টি এবং শঙ্খ প্রেক্ষাগৃহে এর প্রদর্শনী চলবে।

২০০৪ সালে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী পরিচালিত ‘ব্যাচেলর’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় অপি করিমের। এতে দারুণ অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হয়েছেন তিনি। ১৯ বছর পর আবারও রুপালি পর্দায় নিজেকে দেখতে মুখিয়ে আছেন জনপ্রিয় এই তারকা। এজন্য তার মধ্যে এখন বেশ উচ্ছ্বাস কাজ করছে।

ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী ও ঋত্বিক চক্রবর্তীর সম্মিলন এবং দারুণ গল্প ও চরিত্রের জন্য ‘মায়ার জঞ্জাল’ দিয়ে চলচ্চিত্রে প্রত্যাবর্তন করতে যাচ্ছেন অপি করিম। এতে তার চরিত্রের নাম সোমা। স্বামী ও একমাত্র সন্তানকে নিয়ে মেয়েটির সংসার। স্বামী বেকার। এ কারণে সন্তানকে ইংলিশ মিডিয়ামে পড়াতে একটি বাসায় কেয়ারটেকারের চাকরি নেয় সে।

সোমার স্বামী চাঁদু চরিত্রে অভিনয় করেছেন ঋত্বিক চক্রবর্তী। গণেশ বাবু চরিত্রে ব্রাত্য বসু, বিউটির ভূমিকায় চান্দ্রেয়ী ঘোষ এবং সত্য চরিত্রে আছেন সোহেল মণ্ডল। এছাড়াও দেখা যাবে কলকাতার পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, শাঁওলি চট্টোপাধ্যায়, দীপক হালদার, জয়দীপ মুখার্জি, অমিত সাহা ও কমলিকা ব্যানার্জিকে। এর শুটিং হয়েছে ঢাকা ও কলকাতায়।

কথাসাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুটি ছোটগল্প অবলম্বনে চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক ইন্দ্রনীল রায়চৌধুরী নিজেই। ২০১৩ সালে ‘ফড়িং’ ছিল তার পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র। এরপর টেলিভিশন চ্যানেলের জন্য চলচ্চিত্র ‘একটি বাঙালি ভূতের গপ্পো’ এবং ‘ভালোবাসার শহর’ নামের একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য ছবি পরিচালনা করেন তিনি। দুটিতেই অভিনয় করেছেন জয়া আহসান।

চীনের মর্যাদাসম্পন্ন সাংহাই আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের এশিয়ান নিউ ট্যালেন্ট অ্যাওয়ার্ডের অফিসিয়াল সিলেকশনে ‘মায়ার জঞ্জাল’ ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়। এরপর মস্কো, ইন্দোনেশিয়া, ইতালি, লন্ডন ও ঢাকার বিভিন্ন উৎসবে অংশ নিয়ে পুরস্কার পেয়েছে ছবিটি।

আর্টহাউস চলচ্চিত্রের বিশ্বসেরা স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম ‘মুবি ডটকম’-এ (mubi.com) স্থান পেয়েছে ‘মায়ার জঞ্জাল’। অবিশ্বাস্য সুন্দর ও আকর্ষণীয় ছবির তালিকায় রাখা হয়েছে এটি। একই বিভাগে আছে জ্যঁ লুক-গদার, ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা, মার্টিন স্করসেসি, কোয়েন্টিন টারান্টিনো, রোমান পোলানস্কি, ডেভিড ফিঞ্চার, ফ্রাঁসোয়া ক্রুফোর মতো খ্যাতিমান নির্মাতাদের মাস্টারপিস চলচ্চিত্র।

‘মায়ার জঞ্জাল’ যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে বাংলাদেশের ভিউজ অ্যান্ড ভিশনস এবং কলকাতার প্রতিষ্ঠান ফ্লিপবুক।

Advertisement
Share.

Leave A Reply