fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৩০শে নভেম্বর ২০২২ | ১৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

বাঙালির মুক্তির সংগ্রামের ইতিহাসে একুশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষ্যে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদক দেওয়া হলো ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিককে।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বেলা ১১টায় পদক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি অংশগ্রহণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে বিশিষ্ট নাগরিক ও তাঁদের প্রতিনিধিদের হাতে একুশে পদক তুলে দেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। পদকপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ৩৫ গ্রাম ওজনের একটি স্বর্ণপদক, এককালীন চার লাখ টাকা ও একটি সম্মাননাপত্র দেওয়া হয়েছে।

এর আগে, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে ২০২১ সালের পদকপ্রাপ্তদের নাম ৪ ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করা হয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী পদকপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানিয়ে এ সম্মাননা কোন ব্যক্তি বিশেষের নয়, এই সম্মাননা পুরো জাতির উল্লেখ করে বলেন, ‘বাঙালির মুক্তির সংগ্রামের ইতিহাসে একুশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে চলবে, সম্মানের সাথে চলবে। কারো কাছে হাত পেতে নয়, নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে আত্মমর্যাদা ও সম্মান নিয়ে বিশ্বের বুকে চলবে এ দেশ। যারা রক্ত দিয়ে শুধু মাতৃভাষায় কথা বলা না, আমাদের স্বাধীনতা অর্জনের পথ তৈরি করে দিয়েছে তাদেরকে সম্মান জানান দেশনেত্রী।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী জানান, আগে মাত্র কয়েকজনকে এই সম্মাননা দেয়া হতো। কিন্তু, এবার ২১ ফেব্রুয়ারি উপলক্ষ্যে সরকার ২১ জনকে এই সম্মাননা দিয়েছেন। এমনকি পুরস্কারের অর্থও বাড়ানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এসময় দেশনেত্রী সবাইকে স্বাস্থ্য সুরক্ষার নিয়ম মেনে চলতে অনুরোধ করে বলেন, ‘করোনা মহামারি চলছে। যদিও ভ্যাকসিন আসছে, ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে। তারপরও এ বিষয়ে এখনো গবেষণা চলছে। সবার মাস্ক পরা ও হাত ধোয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে মেনে চলা উচিত।

মন্ত্রণালয় সূত্র থেকে জানা যায়, এ বছর ভাষা আন্দোলনে অবদানের জন্য মরণোত্তর একুশে পদক পেয়েছেন ৩ জন, মুক্তিযুদ্ধ ক্যাটাগরিতে ৩ জন, শিল্পকলায় পদক পেয়েছেন ৭ জন, ভাষা ও সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য পদক পেয়েছেন ৩ জনসহ সাংবাদিকতা, গবেষণা, শিক্ষা, অর্থনীতি ও সমাজসেবায় একজন করে পেয়েছেন‌ এ পদক।

বাঙালির মুক্তির সংগ্রামের ইতিহাসে একুশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ : প্রধানমন্ত্রী

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা একুশে পদক পেলেন দেশের ২১ জন বিশিষ্ট ব্যক্তি। ছবি: সংগৃহীত

ভাষা আন্দোলনে অবদানের জন্য এবার মরণোত্তর একুশে পদক পেয়েছেন- মোতাহার হোসেন তালুকদার (মোতাহার মাস্টার), শামছুল হক, অ্যাডভোকেট আফসার উদ্দীন আহমেদ।
শিল্পকলায় পদক পেয়েছেন- কণ্ঠশিল্পী পাপিয়া সারোয়ার, অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ, সালমা বেগম সুজাতা (সুজাতা আজিম), আহমেদ ইকবাল হায়দার (নাটক), সৈয়দ সালাউদ্দিন জাকী (চলচ্চিত্র), ড. ভাস্বর বন্দোপাধ্যয় (আবৃত্তি), ও পাভেল রহমান (আলোকচিত্র)।
মুক্তিযুদ্ধ ক্যাটাগরিতে গোলাম হাসনায়েন, ফজলুর রহমান খান ফারুক, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দা ইসাবেলা (মরণোত্তর) পদক পেয়েছেন।
সাংবাদিকতায় অজয় দাশগুপ্ত, গবেষণায় অধ্যাপক ড. সমীর কুমার সাহা, শিক্ষায় বেগম মাহফুজা খানম, অর্থনীতিতে ড. মীর্জা আব্দুল জলিল, সমাজসেবায় প্রফেসর কাজী কামরুজ্জামান, ভাষা ও সাহিত্যে বিশেষ অবদানের জন্য কবি কাজী রোজী, বুলবুল চৌধুরী ও গোলাম মুরশিদ পদক পেয়েছেন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদের সভাপতিত্বে পদক বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা, সংসদ সদস্যবৃন্দসহ অন্যান্য গন্যমান্য ব্যক্তিরা।

Advertisement
Share.

Leave A Reply