fbpx
BBS_AD_BBSBAN
২১শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

বেইজিংয়ে শি-ম্যাক্রন বৈঠক: দ্রুত রাশিয়া-ইউক্রেন শান্তি আলোচনার আহ্বান

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

যত দ্রুত সম্ভব রাশিয়া-ইউক্রেন শান্তি আলোচনা আয়োজনের আহ্বান জানিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং ও ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রন। আজ বেইজিংয়ে এই দুই নেতার পক্ষ থেকে এ আহ্বান জানানো হয়।

বেইজিংয়ের গ্রেট হল অব দ্য পিপলে শি ও ম্যাক্রন বৃহস্পতিবার (৬ এপ্রিল) বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে সংঘর্ষের সময় পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের বিরুদ্ধে তাঁদের অবস্থানের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করেন দুই নেতা।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের কাছে তাঁর ঘনিষ্ঠ মিত্র রাশিয়াকে দ্রুত ইউক্রেন যুদ্ধ বন্ধ করতে বলার আহ্বান জানান। এর জবাবে শি বলেন, দুই পক্ষ যত দ্রুত সম্ভব শান্তি আলোচনায় বসবে বলে তিনি আশা করছেন।

ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের জন্য বেইজিং সফর করছেন ম্যাক্রন ও ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লিয়েন। বেইজিংয়ে শির সঙ্গে এক বৈঠকে ম্যাক্রন বলেন, পশ্চিমাদের অবশ্যই বেইজিংকে সংকট নিরসনে সহায়তা করতে হবে এবং উত্তেজনা রোধ করতে হবে, যাতে বৈশ্বিক শক্তিগুলোকে যুদ্ধরত ব্লকে বিভক্ত করতে না পারে।

ম্যাক্রন বলেন, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন আন্তর্জাতিক স্থিতিশীলতায় বড় ধাক্কা দিয়েছে। তিনি শিকে রাশিয়াকে যৌক্তিকতা বোঝাতে ও আলোচনার টেবিলে ফেরানোর আহ্বান জানান। বৈঠকের পর শির পক্ষ থেকে ইউক্রেন ও রাশিয়াকে শান্তি আলোচনা জারি রাখতে ও সংঘাতের রাজনৈতিক সমাধান খুঁজতে আহ্বান জানানো হয়।

ফ্রান্সের পক্ষ থেকে এ আলোচনাকে খোলামেলা ও গঠনমূলক হিসেবে বর্ণনা করা হয়েছে। আর চীনের পক্ষ থেকে একে বন্ধুত্বপূর্ণ ও গভীর বলে মন্তব্য করা হয়েছে।

ম্যাক্রন চীনের প্রেসিডেন্টের প্রতি রাশিয়াকে আন্তর্জাতিক আইন মানতে ও পারমাণবিক অস্ত্রের সম্প্রসারণ রুখতে চাপ দেওয়ার কথা বলেন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, তিনি বেলারুশ সীমান্তে কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েন করছেন। একে বছরব্যাপী রক্তক্ষয়ী ইউক্রেন যুদ্ধের বড় ধরনের বিপজ্জনক উত্তেজনা বৃদ্ধি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

চীনা প্রেসিডেন্ট অবশ্য রাশিয়ার নাম উল্লেখ না করে বলেন, সব দেশকে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহার না করার প্রতিশ্রুতিকে সম্মান করা উচিত এবং পরমাণু যুদ্ধ ঘটতে দেওয়া উচিত নয়। তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এমন কোনো পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন, যাতে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয় ও তা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়।

তথ্যসূত্র: রয়টার্স

Advertisement
Share.

Leave A Reply