fbpx

বেনাপোল দিয়ে বন্ধ ভারতীয় চাল আমদানী

Pinterest LinkedIn Tumblr +

দেশে চালের বাজার স্থিতিশীল রাখতে ভারত থেকে চাল আমদানির সময়সীমা শেষ হয়েছে গতকাল শনিবার (৩০ অক্টোবর)। তাই খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে আজ রবিবার (৩১ অক্টোবর) থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারত থেকে চাল আমদানি বন্ধ রয়েছে। তবে চাল আমদানি বন্ধ থাকলেও, আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য স্বাভাবিক রয়েছে অন্যান্য পণ্যের।

গত ২৫ আগস্ট দেশে চালের বাজার ঊর্ধ্বগতি রোধ ও আমদানি নিয়ন্ত্রণ করার লক্ষ্যে ৪০০ জন ব্যবসায়ীকে সাড়ে ১৬ লাখ মেট্রিক টন চাল আমদানির অনুমতি দেওয়া হয়েছিল খাদ্য মন্ত্রণালয়। তবে, শর্ত দেওয়া হয়েছিল ৩০ অক্টোবরের (শনিবার) মধ্যে আমদানি কাজ শেষ করার।

এ বিষয়ে বেনাপোল বন্দরের উপ পরিচালক (ট্রাফিক) মামুন কবীর তরফদার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সরকারি নিষেধাজ্ঞার কারণে ৩০ অক্টোবরের পর চালের কোনো ট্রাক বন্দরে প্রবেশ করতে করেনি।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, দেশে প্রতিবছর চালের চাহিদা রয়েছে দুই কোটি ৩১ লাখ ৮২ হাজার মেট্রিক টন। আর দেশে চাল উৎপাদন হয় বছরে গড়ে সাড়ে তিন কোটি মেট্রিক টন। চাল উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বের তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। তবে বৈরী আবহাওয়া ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে কখনো কখনো দেশে চাল আমদানির প্রয়োজন হয়।

এদিকে, কিছু আমদানিকারকেরা সারা বছর ধরে চাল আমদানি করায় ভরা মৌসুমে চাল আমদানির কারণে কৃষকেরা ন্যায্যমূল্য না পেয়ে আর্থিক ক্ষতির শিকার হয়। এ কারণেই সরকার কৃষকদের বাঁচাতে চাহিদামতো আমদানিকারকদের তালিকা করে চাল আমদানির পরিমাণ ও সময় সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে।

Share.

Leave A Reply