fbpx

বেড়েছে ডলারের দাম

Pinterest LinkedIn Tumblr +

দেশের বাজারে বেড়েছে মার্কিন ডলারের দাম। ব্যাংকগুলোতে এখন ডলারের নগদ মূল্য দাঁড়িয়েছে সাড়ে ৮৮ টাকা। আর আমদানি পর্যায়ে ডলারের দাম উঠেছে ৮৫ টাকা ২৫ পয়সা। তবে খোলা বাজারে এই ডলার আরও বেশি দামে কেনা বেচা হচ্ছে।

ব্যাংক সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দেশে করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় আমদানি চাপ বেড়েছে। ফলে এই দায় পরিশোধ করতে বাড়তি ডলারের প্রয়োজন হচ্ছে। তাই বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে ডলার। তবে বাজার স্থিতিশীল রাখতে ব্যাংকগুলোর চাহিদার বিপরীতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলার বিক্রি করছে।

বাজারে দীর্ঘদিন ধরেই ডলারের বাজার স্থিতিশীল ছিল। কিন্ত গত মাসের শুরু থেকে টাকার বিপরীতে ডলারের দাম বাড়তে শুরু করে। আগস্ট মাসজুড়ে আন্তঃব্যাংক ডলারের দামে বাড়ে ৪০ পয়সা। এখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক আন্তঃব্যাংক ডলারের দাম ৮৫ টাকা ২০ পয়সা বেঁধে দিয়েছে। গত বছরের জুলাই থেকে চলতি বছরের আগস্ট পর্যন্ত ডলারের দাম ৮৪ টাকা ৮০ পয়সায় স্থিতিশীল ছিল।

রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) দেশি ও বিদেশি খাতের বেশিরভাগ ব্যাংক ৮৫ টাকা ২৫ পয়সা দরে ডলার বিক্রি করেছে। তবে নগদ ডলারের মূল্য বেশিরভাগ ব্যাংকে ৮৭ টাকার উপরে রয়েছে। কয়েকটি ব্যাংক নগদ  ডলার সাড়ে ৮৮ টাকায় বিক্রি করছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে ২ সেপ্টেম্বর ব্যাংকগুলোর ঘোষিত মুদ্রা বিনিময় হার অনুযায়ী, নগদ ডলারের দর সবচেয়ে বেশি উঠেছে ব্র্যাক ব্যাংক, এনআরবিসি ও আইসিবি ইসলামী ব্যাংকের। ব্যাংকগুলোর নগদ ডলারের দর ছিল ৮৮ টাকা ৫০ পয়সা। এছাড়া বেশির ভাগ ব্যাংকই ৮৭ টাকা থেকে ৮৮ টাকায় ডলার বিক্রি করছে।

সর্বনিম্ন দরে নগদ ডলার বিক্রি করছে ন্যাশনাল ব্যাংক অব পাকিস্তান ৮৫ টাকায় এবং বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের ডলারের দর ছিল ৮৫ টাকা ৬০ পয়সা। শুধু তাই নয়, মানিএক্সচেঞ্জ হাউজগুলোও বেশি দামে ডলার বিক্রি করছে বলে জানা গেছে।

Share.

Leave A Reply