fbpx

ভ্রমণে ছুটছে মানুষ

Pinterest LinkedIn Tumblr +

‘কোথাও আমার হারিয়ে যাওয়ার নেই মানা, মনে মনে, মেলে দিলেম গানের সুরের এই ডানা, মনে মনে’- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই গানের মতই দীর্ঘ লকডাউন শেষে মানুষ আসলেই ডানা মেলে উড়ছে। করোনা মহামারির কারণে অনেকটা সময় পর্যন্ত কেউ ঘরের বাইরে পা রাখতে পারেননি। দম যেন হাঁসফাঁস করছিল সবার। যেইনা লকডাউন উঠিয়ে নেওয়া হল, ভ্রমণপিপাসুরা শরীরে, মনে প্রাণ পেলেন! তাই এখন আর মনে মনে উড়ার দরকার নেই, বাস্তবেই উড়ছেন তারা।

কেউ ভেসে যাচ্ছেন পানির কলকল মুর্ছনায়, কেউবা পাহাড়ের দৃঢ়তা নিজের প্রাণে সঞ্চারিত করছেন। যার সাধ্য যতটুকু, সেখান থেকেই উদযাপন করছেন কাঙ্খিত অবকাশ।

কক্সবাজার, সেন্টমার্টিন, কিংবা সিলেটের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে বিমোহিত হতে ছুটছেন ক্ষুধিত ভ্রমণপিপাসুরা। এতদিনের চোখ ও মনের ক্ষুধা মিটিয়ে নিচ্ছেন একদম কড়ায়গন্ডায়।

দেশের অবকাশ যাপন কেন্দ্রগুলোতে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। বেশ আগে থেকেই বুকিং দিয়ে রাখতে হচ্ছে।

দেশের ভেতরে অবকাশ যাপনের পাশাপাশি যাদের সামর্থ আছে তারা ছুটছেন দেশের বাইরেও। যদিও বিশ্বের অনেক দেশেই এখনও করোনার কড়াকড়ি চলছে, কিন্তু যেসব দেশে যাওয়ার সুযোগ আছে, সে সুযোগ একদমই মিস করতে নারাজ ভ্রমণপিপাসুরা। তাই বিভিন্ন দেশের রুপ-রস-গন্ধ-বর্ণ চোখ ও মন দিয়ে চেখে দেখার সাধ কেইবা ছাড়তে চায়। আপনার যদি সুযোগ থাকে, তাহলে একদমই এই সুযোগ মিস করবেন না প্লিজ। বেরিয়ে পড়ুন জীবনের সঞ্জীবনী সুধা পান করতে।

ভ্রমণের নেশায় কেউ কেউ ছুটছেন দেশের বাইরে।

ভ্রমণ অনেকের কাছে জীবনদায়ী সুধা। স্বর্গের সুধা পান করতে না পারলেও আপনি চাইলেই পৃথিবীর এই সুধা পান করতেই পারেন। জ্ঞানী-গুণীরা কিন্তু বলে থাকেন, ভ্রমণ জীবনের আয়ু বাড়িয়ে দেয়। তাই দেরি না করে বেরিয়ে পড়ুন, অমৃতসুধা পান করুন, আয়ু বাড়ান।

দেশের বাইরেই যেতে হবে এমনটা নয়। আমাদের দেশের ভেতরেই আছে দারুণ সব ঘোরার জায়গা! খোঁজ নিয়ে দেখুন, অসংখ্য জায়গা পেয়ে যাবেন যেখানে আপনি কখনো পা ফেলেননি। সেখানে পা ফেলে নিজেকে ধন্য করুন!

Share.

Leave A Reply