fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৮ই ডিসেম্বর ২০২২ | ২৩শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

মশার রাজধানীতে ভিন্ন প্রতিবাদ

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

মশার উপদ্রবে অতিষ্ঠ রাজধানীবাসী। এ শহরের সর্বত্রই এখন মশা। এ যেন মানুষের নয়,মশার রাজধানী-এমন  অভিযোগে মানববন্ধন করছেন ঢাকার ভাড়াটিয়া পরিষদ। তারা বলছেন,নামে মশা মারার ওষুধ কার্যকারিতা কিছুই নাই, মশা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। ।

১২ মার্চ শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মশার অসহনীয় উপদ্রব থেকে রাজধানীবাসীকে রক্ষার দাবিতে এ মানববন্ধন করে ভাড়াটিয়া পরিষদ।

নগরীর খাল-নালা পরিষ্কার না করায় মশার প্রজননস্থল বেড়েছে বলে অভিযোগ করা হয় মানববন্ধনে। বক্তারা বলেন,  আধা ইঞ্চি মশা মারতে ব্যর্থ হয়েছেন ঢাকার দুই মেয়র।

মানববন্ধন থেকে আরও বলা হয়, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন আগে থেকে মশা নিয়ন্ত্রণে কঠোর পদক্ষেপ নিলে নগরবাসীকে এমন পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না। বিভিন্ন এলাকার মশকনিধন কর্মীদের দায়িত্বে অবহেলা এখন সাধারণ মানুষ ভোগ করছে। সিটি করপোরেশনের বরাদ্দ অনুযায়ী বাসাবাড়ির আঙিনা, জলাশয়, ডোবা ও ড্রেনে ওষুধ ছিটালে মশার বিস্তার ঘটতো না, বরং মশা বাড়লেও তা নিয়ন্ত্রণে আনা যেত বলে দাবি করেন তারা।

ভাড়াটিয়া পরিষদের সদস্যরা বলেন, মশা জলাশয়ে বেশি বংশবিস্তার করে, সে ক্ষেত্রে সেখানে কীটনাশক স্প্রে করে মশার লার্ভা নষ্ট করা ও পরিষ্কার রাখা সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব। ওষুধ ছিটানোর পাশাপাশি সিটি করপোরেশনকে ডোবা-জলাশয়ে পানির প্রবাহ সচল করে দিতে হবে।

মশা নিয়ন্ত্রণ করতে হলে মশকনিধন কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিতে সিটি করপোরেশনকে পরামর্শ দেন তারা । পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি সব ভবনের ছাদ-বেসমেন্টসহ বিভিন্ন স্থানে ময়লা-আবর্জনা ও ড্রেনগুলো নিয়মিত পরিষ্কার করার দাবি জানানো হয় ।

Advertisement
Share.

Leave A Reply