fbpx

মিয়ানমারে রক্তক্ষয়ী দিন, নিহত ৯১ জন

Pinterest LinkedIn Tumblr +

মিয়ানমারে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে শনিবার নিহত হয়েছে অন্তত ৯১। আহত হয়েছেন আরও অনেকে ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এই তথ্য দিয়েছে।

শনিবার সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে ‘সশস্ত্র বাহিনীর জন্য লজ্জা দিবস’ স্লোগানে কর্মসূচি দেয় গণতন্ত্রন্থীরা।

ইয়াংগন, মান্দালয়সহ বিভিন্ন শহরে সেনাবাহিনীর গুলির তোয়াক্কা না করেই রাস্তায নেমে আসেন হাজারো বিক্ষোভকারী। এরপরই তাদের ওপর চাড়াও হও নিরাপত্তা বাহিনী।

জান্তাবিরোধী জোটের মুখপাত্র ডা. সাসা বলেন, সশস্ত্র বাহিনীর জন্য লজ্জা দিবস’। তিনি বলেন ‘ তিনশতাধিক নিরপরাধ বেসামরিক মানুষকে হত্যা করে সেনাবাহিনীর জেনারেলরা সশস্ত্র বাহিনী দিবস পালন করছে’।

রয়য়টার্স জানায়, ইয়াংগুনের দালা শহরতলীর একটি থানার বাইরে জড়ো হওয়া বিক্ষোভকারীদের ওপর নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে অন্তত ৪ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ১০ জন।

ইয়াংগুনের ইনসেইন জেলায় একটি বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ৩ জন নিহত হয়েছে। নিহতদের মধ্যে স্থানীয় একটি অনুর্ধ্ব-২১ ফুটবল দলের খেলোয়াড়ও রয়েছেন।

শুধু মান্দালয়েই নিহত হয়েছে ১৩ জন। এছাড়া নিহতের খবর এসেছে মান্দালয়ের কাছে সাগাইং অঞ্চল
লাসহিও শহর ও ইয়াংগুনের কাছের বাগো এলাকা থেকে।

তবে হতাহতের বিষয়ে এখনও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য করা হয়নি।

চলতি বছর, ১ ফেব্রুয়ারি সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকেই দেশজুড়ে বিক্ষোভ করে আসছে হাজারো মানুষ। স্থানীয় জরিপ বলছে এ পর্যন্ত বিক্ষোভে নিহত হয়েছেন ৩৮০ জনেরও বেশি আন্দোলনকারী।

সেনাবাহিনীর দাবি, বিক্ষোভকারীদের পাল্টা হামলায় অন্তত ১০ জন নিরিপত্তা বাহিনী নিহত হয়েছে। তবে আন্তর্জাকিক গণমাধ্য এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেনি।

Share.

Leave A Reply