fbpx

মুজিব-রশিদের ঘূর্ণিতে কুপোকাত স্কটল্যান্ড

Pinterest LinkedIn Tumblr +

নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে বড় জয় তুলে নিয়েছে আফগানিস্তান। নাজিবুল্লাহ জাদরান- রহমতুল্লাহ গুরবাজদের ব্যাটে ভর করে ১৯০ রান স্কোরবোর্ডে তোলে আফগানরা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুজিব-উর-রহমান-রশিদ খানের স্পিন ঘূর্ণিতে ৬০ রানেই শেষ স্কটিশদের ইনিংস। আফগানদের জয় ১৩০ রানে!

দেশের এমন দুঃসময়ে জয়টা আফগানিস্তানের জন্য ভীষণ প্রয়োজন ছিল। সেই লক্ষ্যেই টসে জিতে ব্যাটিংয়ে মোহাম্মদ নবির দল। দুই ওপেনার হজরতুল্লাহ জাজাই এবং মোহাম্মদ শেহজাদ প্রথম ওভারটা দেখেশুনে খেললেও পরের ওভার থেকেই স্কটিশ বোলারদের ওপর শুরু করেছেন তাণ্ডব। প্রথম ছয় ওভারেই স্কোরবোর্ডে তুলেছে ১ উইকেটে ৫৫। তিন বছর পর আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ফিরে মোহাম্মদ শেহজাদ করেছেন ১৫ বলে ২২ রান।

আরেক ওপেনার জাজাই যখন প্যাভিলিয়নে ফিরছেন, তখন দশম ওভারের খেলা চলমান। মার্ক ওয়াটের বলে বোল্ড হওয়ার পূর্বে জাজাইয়ের ব্যাট থেকে তিন চার এবং তিন ছয়ে এসেছে ৪৪ রান। এরপর ইনিংসটাকে এগিয়ে নেওয়ার কাজটা খুব ভাল করেই করেছেন দুই ব্যাটসম্যান নাজিবুল্লাহ জাদরান-রহমতুল্লাহ গুরবাজ। দুজনের ব্যাট থেকে তৃতীয় উইকেট জুটিতে এসেছে ৮৭ রান। ব্যক্তিগত ৪৬ রানে রহমতুল্লাহ প্যাভিলিয়নে ফিরলেও, অর্ধশতক তুলে নিয়েছেন নাজিবুল্লাহ। ইনিংসের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে করেছেন ৫৯ রান। নির্ধারিত বিশ ওভার শেষে মোহাম্মদ নবির দলের সংগ্রহ চার উইকেটে ১৯০।

১৯১ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে দারুণ কিছুর ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন দুই ওপেনার। কিন্তু, চতুর্থ ওভারে মুজিব-উর-রহমানের স্পিন ঘূর্ণিতে প্যাভিলিয়নে একে একে তিনজন! ১০ রান করা স্কটিশ অধিনায়ক কাইল কোয়েতজারকে বোল্ড করে শুরু; এরপর রানের খাতা খোলার আগেই এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেছেন কালাম ম্যাকলয়েড এবং রিচি বেরিংটনকে। পরের ওভারেই নাভিন-উল-হকের বলে শেহজাদকে ক্যাচ দিয়ে শূন্য রানে ফিরেছেন ম্যাথু ক্রসও।

দলকে এগিয়ে নেয়ার ভারটা তখন ওপেনার জর্জ মুন্সির ওপর। কিন্তু, তিনিও করেছেন নিরাশ। মুজিবের বলেই বোল্ড হয়ে ফিরেছেন ২৫ রান করে। পাওয়ারপ্লের ছয় ওভার শেষে স্কটিশদের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৩৭! সপ্তম ওভারে প্রথমবারের মতো বল হাতে রশিদ খান; নিজের প্রথম ওভারেই কোনো রান না করা মাইকেল লিস্ককে করেছেন এলবিডব্লিউ। ৩৮ রানেই ছয় উইকেট হারানো স্কটিশদের হারটা তখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।

নিজের শেষ ওভারে বল করতে এসে পঞ্চম বলে মার্ক ওয়াটকে বোল্ড করে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো ৫ উইকেট তুলে নিয়েছেন মুজিব। স্কটল্যান্ডের সর্বশেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে ব্রাড হুয়েলকে যখন বোল্ড করলেন রশিদ; তখন তার নামের পাশে ৯ রানে ৪ উইকেট। ১০.২ ওভারেই শেষ স্কটিশদের ইনিংস; অলআউট ৬০ রানেই!

Share.

Leave A Reply