fbpx

রবি শাস্ত্রির পর কে হতে যাচ্ছেন ভারতের পরবর্তী কোচ?

Pinterest LinkedIn Tumblr +

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম এই সংস্করণে অধিনায়ত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন ভিরাট কোহলি। কে হবেন পরবর্তী অধিনায়ক সেই নিয়ে আলোচনা যখন তুঙ্গে, তখন রবি শাস্ত্রি জানালেন, ওমান এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে হতে চলা বিশ্বকাপের পরেই ভারতীয় দলের কোচের পদ থেকে তিনিও সড়ে দাঁড়াচ্ছেন।

শোনা যাচ্ছে, ভারতীয় কোচিং প্যানেলে অনিল কুম্বলেকে আবার ফেরাতে চায় বিসিসিআই। ভিভিএস লক্ষণ, রাহুল দ্রাবিড়দের নামটাও উচ্চারিত হচ্ছে সম্ভাব্য কোচের তালিকায়। অন্যদিকে, বিশ্বকাপে দলের মেন্টর হিসেবে এরইমধ্যে ঘোষণা করা হয়েছে মহেন্দ্র সিং ধোনির নাম। বিশ্বকাপ শেষে সকলকে চমকে দিয়ে ধোনির নামটাও যে ঘোষণা করবে না বিসিসিআই, তারই বা নিশ্চয়তা কি?

ধোনির ক্রিকেটীয় মেধা এবং দলের সবার সাথে ভাল সম্পর্কটাই স্বপ্ন দেখাচ্ছে ক্রীড়াপ্রেমিদের। ছবি: সংগৃহীত

কুম্বলে এর আগেও একবার জাতীয় দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন। ভারতীয় দলে খেলোয়াড় হিসেবে তার জার্নিটা মধুর হলেও, কোচ হিসেবে যে হয়নি তেমন সুখকর, সেটা তার পদত্যাগেই বোঝা গিয়েছিল। অধিনায়ক কোহলির সাথে মতের অমিল বেড়ে যাওয়াতে ছাড়তে বাধ্য হয়েছিলেন কোচের পদটাই। হারানো মুকুটটা আবারও ফিরে পেতে চাইবেন কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে।

মেন ইন ব্লুদের দায়িত্ব নিতে আগ্রহী নন রাহুল দ্রাবিড়ও। বিভিন্ন সময়েই বিসিসিআইয়ের বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করলেও দ্রাবিড়ের আগ্রহ নেই জাতীয় দলের কোচিং করানোতে। বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলি তবুও জানিয়েছেন, দ্রাবিড়ের দড়জাটা খোলাই আছে। ভিভিএস লক্ষণের নামটাও উঠে এসেছে এবারের কোচ হওয়ার তালিকায়। সম্ভাবনা আছে কোচের দায়িত্ব পাওয়ারও। বিদেশীদের মধ্যে বিসিসিআইয়ের পরিকল্পনায় ছিলেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি মাহেলা জয়বর্ধনেও।  কিন্তু জয়বর্ধনে কোনো জাতীয় দলের কোচ হতে এখনি আগ্রহি নন, জানিয়েছেন নিজেই। পরিবারকে সময় দিতে চান তিনি, তাই বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগগুলোর দায়িত্বেই সন্তুষ্ট লঙ্কান তারকা।

সুযোগ আছে দ্রাবিড় এবং লক্ষণেরও। ছবি: সংগৃহীত

এরইমধ্যে ভারতীয় দলের কোচিং প্যানেলে যুক্ত করা হয়েছে দেশটির সবচেয়ে সফল অধিনায়কদের একজন মহেন্দ্র সিং ধোনির নামটাও। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দেশটির মেন্টরের দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। ধোনির যে কোচিংয়ের প্রতি আগ্রহ আছে সেটা বিভিন্ন সময়েই জানিয়েছেন নিজেই। তার দুর্দান্ত ক্রিকেটীয় মেধা, ভারতের বর্তমান দলে থাকা প্রত্যেকের সাথেই দারুণ সম্পর্কের কারণে কোচের তালিকায় উচ্চারিত হচ্ছে তার নামটাও। দেশের মানুষও ধোনিকে মন থেকে দেখতে চান ভারতীয় শিবিরে। কোনো দলের কোচিং না করানো ধোনির ভারতের মতো দলের কোচ হওয়ার সম্ভাবনাটা ক্ষীণ হলেও, সুযোগটাকে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। সুযোগ আছে ভারতের সহকারি কোচ বিক্রম রাঠোরেরও।

শেষ অব্দি ভারতের অধিনায়ক এবং কোচের সমস্যার সমাধান কি হয়, সেটা জানার জন্য অপেক্ষায় থাকতে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত।

Share.

Leave A Reply