fbpx

লাতিন আমেরিকার সর্বোচ্চ গোলদাতা হলেন মেসি

Pinterest LinkedIn Tumblr +

তিনি রেকর্ডের বরপুত্র। কি গোল, কি অ্যাসিস্ট- সবখানেই রেকর্ড পায়ে লুটায় তাঁর। কিছুদিন আগেই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো গড়েছেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বকালের সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড, লিওনেল মেসি কি বেশিদিন পিছিয়ে থাকতে পারেন? তাই তিনিও নাম লেখালেন রেকর্ডের পাতায়।

শুক্রবার বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বলিভিয়ার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করার মাধ্যমে ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলেকে (৭৭) ছাড়িয়ে লাতিন আমেরিকার ইতিহাসে সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক গোলের মালিক হয়ে গেছেন লিওনেল মেসি (৭৯)। তাঁর তিন গোলেই বলিভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা।

আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সে ৪-৪-২ ছকে দল সাজিয়েছিলেন আর্জেন্টিনার কোচ লিওনেল স্কালোনি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলা এমিলিয়ানো মার্তিনেজ, ক্রিস্তিয়ান রোমেরো, জিওভানি লো সেলসো ও এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়াকে আগেই ছেড়ে দিয়েছে আর্জেন্টিনা। মার্তিনেজের জায়গায় তাই গোলপোস্টের নীচে দাঁড়িয়েছিলেন হুয়ান মুসো। রক্ষণে জুটি বেঁধেছিলেন জার্মান পেজেলা ও নিকোলাস ওতামেন্দি। মাঝমাঠে সুযোগ পেয়েছিলেন পাপু গোমেজ।

ম্যাচের শুরু থেকেই নিজেদের চিরায়ত রক্ষণাত্মক ধারায় খেলতে থাকে র‍্যাংকিংয়ে ৮২ নম্বর পজিশনে থাকা বলিভিয়া। তবে তাদের রক্ষণদূর্গে ফাটল ধরাতে আর্জেন্টিনার বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি। ম্যাচের ১৩ মিনিটে বক্সের ঠিক বাইরে থেকে দুর্দান্ত শটে গোল করেন লিওনেল মেসি। এই গোলের মাধ্যমে ৭৭ আন্তর্জাতিক গোল নিয়ে পেলের পাশে গিয়ে বসেন তিনি।

প্রথমার্ধে দারুণ কিছু গোলের সুযোগও সৃষ্টি করেছিলেন পিএসজি’র এই প্লেমেকার; তবে লাউতারো মার্তিনেজ সেগুলো গোলে পরিণত করতে পারেননি। মেসি নিজেও অল্পের জন্য মিস করেছেন দুটি সুযোগ। অবশেষে দ্বিতীয়ার্ধের ৬৫ মিনিটের মাথায় এলো কাঙ্ক্ষিত সেই মূহুর্ত। লাউতারো মার্তিনেজের সাথে চমৎকার ওয়ান টু পাস খেলে বলিভিয়ার একজন ডিফেন্ডারকে ছিটকে ফেলে দুর্দান্ত ফিনিশিংয়ে মেসি পেয়ে গেলেন তাঁর ৭৮তম আন্তর্জাতিক গোল। লিখলেন লাতিন আমেরিকান ফুটবলের এক নতুন ইতিহাস। তবে, সেখানেই গল্প শেষ হলে তাঁর নাম আর লিওনেল মেসি কেন?

রেকর্ডভাঙা গোলটির পর মেসির গোলক্ষুধা যেন আরো বেড়ে যায়। মাঝমাঠ থেকে বলিভিয়ার ডিবক্স- মেসি যেন হয়ে যান অপ্রতিরোধ্য। দ্বিতীয় গোলটার কিছুক্ষণ পরই একটি বল জালে জড়িয়েছিলেন, তবে তা অফসাইডের খাঁড়ায় বাতিল হয়। এরপর আরো দুটি দারুণ প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়; কিন্তু ৮৯ মিনিটে বাঁ প্রান্ত দিয়ে আরেকটি চমৎকার গোলে মেসি পূর্ণ করেন তাঁর হ্যাটট্রিক। যা আর্জেন্টিনার জার্সি গায়ে মেসির ৭ম হ্যাটট্রিক। এই জয়ে ৮ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখল আর্জেন্টিনা।

Share.

Leave A Reply