fbpx

লেবাননে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদর দপ্তরে রকেট হামলা

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

রোববার (১৫ অক্টোবর,২০২৩)লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদরদপ্তরে রকেট হামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটিতে নিযুক্ত জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন ইউনাইটেড ন্যাশনস ইন্টেরিম ফোর্সেস ইন লেবানন (ইউএনআইএফআইএল)। এক বিবৃতিতে সদরদপ্তর আক্রান্ত হওয়ার তথ্য জানিয়েছে জাতিসংঘের এই শান্তিরক্ষা মিশন।

রোববার (১৫ অক্টোবর,২০২৩) এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের নাকোরায় আমাদের সদরদপ্তরে রকেট আঘাত হেনেছে। কোথায় থেকে এই রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে, তা জানতে আমরা যাচাই-বাছাইয়ের কাজ করছি। হামলার সময় আমাদের শান্তিরক্ষীরা সেখানে ছিলেন না। সৌভাগ্যক্রমে, এই ঘটনায় কেউ আহত হননি।

গত সপ্তাহে ইসরায়েলে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের হামলার পর থেকে ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তজুড়ে হিজবুল্লাহ বিক্ষিপ্তভাবে গোলাবর্ষণ করে আসছে। এর ফলে গাজার পাশাপাশি লেবাননের সাথে ইসরায়েলের নতুন সংঘাত তৈরি হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। হামাসের সাথে ইসরায়েলের যুদ্ধে লেবাননের সশস্ত্র এসব গোষ্ঠী যোগ দিলে তা বিস্তৃত সংঘাতে পরিণত হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে ইরান।

রোববার (১৫ অক্টোবর,২০২৩)লেবানন থেকে ইসরায়েল লক্ষ্য করে অন্তত ২০টি রকেট নিক্ষেপ করেছে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামীগোষ্ঠী হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাশেম বিগ্রেড। কাশেম ব্রিগেডের পাশাপাশি ইরান-সমর্থিত লেবাননের সশস্ত্রগোষ্ঠী হিজবুল্লাহও ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে।

এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলের দুটি বসতিতে হামলা চালিয়েছে হামাসের সশস্ত্র শাখা আল-কাশেম ব্রিগেড। এই হামলায় অন্তত ২০টি রকেট ব্যবহার করেছে গোষ্ঠীটি।

লেবানন থেকে হিজবুল্লাহ এবং আল-কাশেম ব্রিগেডের অব্যাহত হামলা ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে নতুন যুদ্ধের শঙ্কা তৈরি করেছে। তবে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট বলেছেন, হিজবুল্লাহর সাথে ইসরায়েলের যুদ্ধের কোনও আগ্রহ নেই। তিনি বলেছেন, উত্তরাঞ্চলীয় ফ্রন্টে যুদ্ধে জড়োনোর কোনও আগ্রহ নেই ইসরায়েলের। হিজবুল্লাহ যদি সংযত থাকে, তাহলে সীমান্তের পরিস্থিতি আগের মতোই রাখবে ইসরায়েল।

 

Advertisement
Share.

Leave A Reply