fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৭ই ডিসেম্বর ২০২২ | ২২শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

লেবু চায়ের উপকারিতা

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

অনেকেই আছেন যারা দুধ চা এড়িয়ে চলেন। কারণ, দুধ চা স্বাস্থ্যকর নয়। আপনি যদি সকালবেলা চিনি ছাড়া লেবু চা পানে অভ্যস্ত হয়ে থাকেন তবে রয়েছে সুসংবাদ। এই চায়ের স্বাস্থ্য উপকারিতা ঠিক এর স্বাদ ও সুবাসের মতোই চমৎকার। যারা এখনও এই চা পানের অভ্যাস গড়ে তুলতে পারেননি, তারাও জেনে রাখুন প্রতিদিন এক কাপ লেবু চা পানের উপকারিতা।

হজমে সাহায্য করে

সকালে প্রথমেই লেবু চা পান করার ফলে পাকস্থলির বর্জ্য ও টক্সিন পদার্থ বের হয়ে যায়। এছাড়া লেবুতে থাকা ভিটামিন-সি তথা অ্যাসকরবিক অ্যাসিড পেটের ফোলাভাব তৈরি হতে বাধা প্রদান করে। এতে বুক জ্বালাপোড়া, পেট ব্যথা ও খাদ্য পরিপাকজনিত পেটের সমস্যা দেখা দেয় না।

বাড়তি ওজন কমাতে সাহায্য করে

বাড়তি ওজনকে নিয়ন্ত্রণে আনতে লেবু চা দারুণ কাজ করে। বাড়তি ওজনের ফলে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা, হৃদরোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিতে পারে। লেবু চায়ের ভিটামিন-সি শরীরের মেটাবলিজমের মাত্রা বৃদ্ধিতে কাজ করে। যার ফলে ওজন দ্রুত কমে।

হৃদযন্ত্র ভালো রাখে

নিয়মিত লেবু চা পান হৃদযন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। লেবুতে আছে ফ্ল্যাভনয়েড জাতীয় উপাদান কোয়ারসেটিন। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন এর প্রকাশিত জার্নালের তথ্যমতে, কোয়ারসেটিন হৃদযন্ত্র সংক্রান্ত সমস্যার উপশমে ও প্রতিরোধে কাজ করে।

রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে

ডায়াবেটিসের রোগীদের জন্য লেবু চা হলো সর্বোৎকৃষ্ট পানীয়। লেবুতে থাকা হেসপেরিডিন এর বেশ কয়েকটি ফার্মাকোলকিজক্যাল একশনের মাঝে অন্যতম হলো- অ্যান্টিহাইপারলিপিডেমিক ও অ্যান্টিডায়বেটিক অ্যাকশন। এই হেসপেরিডিন শরীরের এনজাইমের উপর প্রভাব তৈরি করে, যা ডায়াবেটিস তথা রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে কাজ করে।

Advertisement
Share.

Leave A Reply