fbpx
BBS_AD_BBSBAN
২২শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ৯ই ফাল্গুন ১৪৩০ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

শিশুশ্রম নিরসন প্রকল্পে বিকাশের মাধ্যমে উপবৃত্তি দেবে সরকার

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত শিশুদের ‘উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা’ ও ‘দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ’ প্রদানের মাধ্যমে শিশুশ্রম নিরসনে প্রতি মাসে ১ হাজার টাকা করে উপবৃত্তি দেবে সরকার। উপবৃত্তির এ অর্থ মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশের মাধ্যমে প্রদানের জন্য বিকাশ এর সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় এবং বিকাশের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই প্রকল্পের আওতায় এক লাখ শিশুকে এক হাজার টাকা করে মাসিক বৃত্তি, ১০ হাজার শিশু শ্রমিককে আত্ম-কর্মসংস্থানের জন্য এককালীন ১৩ হাজার টাকা সিডমানি বিকাশের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। উপকারভোগী শিশুরা তাদের অভিভাবকের বিকাশ অ্যাকাউন্টে আসা অর্থ বাড়তি কোন খরচ ছাড়াই ক্যাশ আউট করে নিতে পারবেন। এই প্রকল্পে ১১২টি এনজিও বাস্তবায়ন অংশীদার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, “বর্তমান সরকারের ডিজিটালাইজেশনের কল্যাণে প্রযুক্তি এতোখানি এগিয়ে গেছে যে এখন ঘরে বসেই আমরা মেসেজ পাই, বিকাশে টাকা এসে গেছে। বিকাশের প্রায় ৬ কোটি গ্রাহকের মধ্যে রয়েছেন শ্রমজীবিরাও। শ্রম মন্ত্রণালয়ের সাথে আজকের এই চুক্তির ফলে সরাসরি বৃত্তির টাকা শিক্ষার্থীর অভিভাবকের বিকাশ অ্যাকাউন্টে চলে যাবে, ফলে কাউকে ফাঁকি দেয়ার সুযোগ নেই।”

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ এহছানে এলাহী বলেন, “প্রায় ছয় কোটি গ্রাহক নিয়ে স্বল্প সময়ে, স্বল্প খরচে আর্থিক সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার ক্ষেত্রে বিকাশ হলো অগ্রপথিক। আজকের এই প্রকল্পের মাধ্যমে এক লাখ শিশুকে এক হাজার টাকা করে পৌঁছে দিবে বিকাশ, কোনো মধ্যস্বত্যভোগীর সাহায্য ছাড়াই সরাসরি সুবিধাভোগীর কাছেই টাকা পৌঁছে যাবে। ভবিষ্যতে আমাদের আরো অনেক প্রকল্পে বিকাশের মতো আধুনিক প্রতিষ্ঠানকে পাশে পাবো আশা করি।”

বিকাশের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, “সুযোগ করে দিতে পারলে সব শিশুই পারবে উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ গড়তে। শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় ঝুঁকিপূর্ণ শিশুশ্রমে নিয়োজিত এক লাখ শিশুর জন্য যে উদ্যোগ নিয়েছে তা ভবিষ্যতের বাংলাদেশকে গড়তে ভূমিকা রাখবে। প্রযুক্তি ব্যবহার করে যথার্থ উপকারভোগীর কাছে সবচেয়ে কম সময়ে বৃত্তির অর্থ পৌঁছে দেয়ার মাধ্যমে এই কার্যক্রমকে যথাযথভাবে বাস্তবায়নে অঙ্গীকারাবদ্ধ বিকাশ।”

উল্লেখ্য, এই প্রকল্পের আওতায় বৃত্তি ও সিডমানি প্রদান ছাড়াও এক লক্ষ শিশু শ্রমিককে ৬ মাসব্যাপী উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ও ৪ মাসব্যাপী দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণ প্রদান, শিশুশ্রমের বিরূপ প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে সর্বস্তরের জনসাধারনকে উদ্বুদ্ধকরণ, ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় নিয়োজিত ১ লক্ষ শিশুর জন্য একটি ডাটাবেইজ ও ট্র্যাকিং সিস্টেম স্থাপনের মত কার্যক্রমগুলোও বাস্তবায়ন করা হবে।

Advertisement
Share.

Leave A Reply