fbpx

সব ধরণের পরীক্ষা বন্ধসহ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১২ সুপারিশ

Pinterest LinkedIn Tumblr +

দেশে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বেড়ে যাওয়ার কারণে পাবলিক পরীক্ষা বন্ধ রাখাসহ ১২ দফা সুপারিশ করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

মঙ্গলবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সভাকক্ষে ‘কোভিড-১৯ প্রতিরোধ ও বর্তমানে করণীয়’ বিষয়ক এক বৈঠকে ১২টি সুপারিশ উপস্থাপিত হয় এবং গৃহীতও হয়। পরে বিসিএস, এসএসসি, এইচএসসি, দাখিল, আলীমসহ অন্যান্য পরীক্ষা বন্ধ রাখতে মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে লিখিতভাবে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে সুপারিশ করা প্রস্তাবগুলো হলো:

১. সম্ভব হলে কমপ্লিট লকডাউনে যেতে হবে, সম্ভব না হলে ইকোনমিক ব্যালান্স রেখে যেকোনো জনসমাগম বন্ধ করতে হবে।

২. কাঁচাবাজার, পাবলিক ট্রান্সপোর্ট, শপিংমল, মসজিদ, রাজনৈতিক সমাগম, ভোট অনুষ্ঠান, ওয়াজ মাহফিল, পবিত্র রমজান মাসের ইফতার মাহফিল ইত্যাদি অনুষ্ঠান সীমিত করতে হবে।

৩. শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখতে হবে।

৪. যেকোনো পাবলিক পরীক্ষা (বিসিএস, এসএসসি, এইচএসসি, মাদ্রাসা, দাখিলসহ অন্যান্য) বন্ধ রাখতে হবে।

৫. কোভিড পজিটিভ রোগীদের কঠোর আইসোলেশন নিশ্চিত করতে হবে।

৬. যারা রোগীদের সংস্পর্শে আসবে তাদের কোয়ারেন্টিন জোরদার করতে হবে।

৭. বিদেশ থেকে আসাদের ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কেয়ারেন্টিনে রাখা এবং এ ব্যাপারে সামরিক বাহিনীর সহায়তা নেওয়া।

৮. আগামী ঈদের ছুটি কমিয়ে আনা।

৯. স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়ে প্রয়োজনে আইন জোরদার করা।

১০. পোর্ট অব এন্ট্রিতে জনবল বাড়ানো, মনিটরিং জোরদার করা।

১১. সব ধরনের সভা বাতিল করে তা ভার্চ্যুয়ালি করা।

১২. পর্যটন এলাকায় চলাচল সীমিত করা।

Share.

Leave A Reply