fbpx

সুপার-১২ নিশ্চিত টাইগারদের!

Pinterest LinkedIn Tumblr +

পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে জিতলেও পরের রাউন্ডটা নিশ্চিত হতো না টাইগারদের। তাকিয়ে থাকতে হতো ওমান-স্কটল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচটার দিকে। সুপার-১২ এ এক পা দিয়ে রাখতে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল বড় ব্যবধানের জয়। সেই কাঙ্ক্ষিত জয়টাই এসেছে পাপুয়া নিউগিনির বিপক্ষে। ৮৪ রানের জয়ে পরের রাউন্ড প্রায় নিশ্চিত করে রাখলো টাইগাররা।

সুপার-১২ নিশ্চিত টাইগারদের!

ব্যাট হাতে সাকিব ছিলেন দুর্দান্ত।

টসে জিতে ব্যাটিং করতে নেমে টাইগাররা শুরুতেই হারিয়েছে মোহাম্মদ নাইমের উইকেট। এরপর লিটন দাসকে নিয়ে ইনিংসটাকে বড় করার কাজটা করেছেন সাকিব আল হাসান। ব্যক্তিগত ২৯ রানে লিটন ফিরে গেলেও সাকিব খেলে গেছেন স্বাচ্ছন্দেই। অর্ধশতকটা তুলে নিতে না পারলেও তিন ছক্কায় করেছেন ৪৬ রান। এরপর অধিনায়ক রিয়াদের অর্ধশতক এবং আফিফ হোসেন-মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে টাইগারদের রানটা নির্ধারিত বিশ ওভারে পৌঁছেছে ১৮১ রানে। রিয়াদের ব্যাট থেকে এসেছে ৫০ রান, আফিফ করেছেন ২১। শেষ তিন বলে ষোল রান নিয়ে সাইফউদ্দিনের সংগ্রহটা ৬ বলে ১৯।

সুপার-১২ নিশ্চিত টাইগারদের!

অর্ধশতক তুলে নিয়েছেন রিয়াদ।

১৮২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে সাকিবের বোলিং তান্ডবে ২৯ রানেই নেই পাপুয়া নিউগিনির সাত উইকেট! শুরুটা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে দিয়ে হলেও নিউগিনি ব্যাটসম্যানদের প্যাভিলিয়নে যাওয়া আসা করার যেই মিছিলটা দেখা গেছে, সেটা এসেছে সাকিবের চার ওভারের স্পেলেই। নিজের চার ওভারে নয় রান দিয়েই সাকিব তুলে নিয়েছেন চারটি উইকেট। অপর প্রান্ত থেকে বোলিং করতে এসে সাকিবকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন মাহেদি হাসান। নিজের চার ওভারের স্পেলে ১টি মাত্র উইকেট নিলেও, শেষ করেছেন বিশ রানে।

সুপার-১২ নিশ্চিত টাইগারদের!

বল হাতে সাকিব নিয়েছেন চারটি উইকেট।

সাত উইকেট হারিয়ে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করলেও উইকেট কিপার কিপলিন ডরিগা-চাদ সোপার মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করতে পেরেছে মোটে ২৫। ব্যক্তিগত ১১ রানেই ড্রেসিং রুমে ফিরেছেন সোপার। শেষদিকে ডরিগার ৪৬* রানের ইনিংসের ওপর ভর করে পাপুয়া নিউগিনি নিজেদের ইনিংস শেষ করেছে ৯৭ রানে। সাকিব নিয়েছেন চারটি উইকেট, তাসকিন এবং সাইফউদ্দিনের সংগ্রহ দুইটি করে।

Share.

Leave A Reply