fbpx

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে বাংলাদেশকে ভারতের উপহার ১২ লাখ টিকা

Pinterest LinkedIn Tumblr +

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার রপ্তানি যখন ভারত সরকার সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছে, সেই মুহূর্তেই বাংলাদেশে ১২ লাখ টিকা উপহার হিসেবে পাঠাচ্ছে দেশটির সরকার। এর আগেও ভারত সরকার ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা উপহার দিয়েছে বাংলাদেশকে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারত সরকারের উপহার হিসেবে দেওয়া ১২ লাখ ডোজ করোনা টিকা আগামীকাল শুক্রবার (২৬ মার্চ) সকাল ৮টার ফ্লাইটে ঢাকা পৌঁছাবে বলে জানা গেছে। আজ বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ)  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন সূত্র সংবাদমাধ্যমকে এ খবর নিশ্চিত করেছে।

সূত্রগুলো থেকে জানা গেছে, আগামীকাল ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দেশে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর তাঁর আসার দিনই ভারতের উপহারের এই টিকা বিমানবন্দরে এসে পৌঁছাবে।

দুই রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠান উদযাপনের জন্য ১৭ মার্চ থেকে দেশে আয়োজন করা হয়েছে ১০ দিনের বিশেষ অনুষ্ঠানের। ‘মুজিব চিরন্তন’ থিমের এ অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ, শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপাকসে, নেপালের প্রেসিডেন্ট বিদ্যা দেবী ভান্ডারি এবং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে শেরিং। আর আগামীকাল আসবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

উল্লেখ্য, গতবছর নভেম্বরে সেরাম ইনস্টিটিউটের সাথে তিন কোটি ডোজ করোনা টিকা কেনার যে চুক্তি হয়েছিল, তারমধ্যে দুই চালানে ৭০ লাখ ডোজ বাংলাদেশ হাতে পেয়েছে। আর ভারত সরকারের উপহার হিসেবে বাংলাদেশে এসেছে আরো ২০ লাখ ডোজ। ‘কোভিশিল্ড’ নামে এই টিকাও ছিল সেরাম ইনস্টিটিউটে উৎপাদিত অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা।

Share.

Leave A Reply