fbpx

২১ এপ্রিলের পর ভারত থেকে আসেনি অক্সিজেন

Pinterest LinkedIn Tumblr +

করোনা রোগীদের চিকিৎসায় বিশ্ব এখন তরল অক্সিজেন সঙ্কটে। এই অবস্থায় ভারতে করোনা মহামারি প্রকোট আকার ধারণ করায় বাংলাদেশে অক্সিজেন আসা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ২১ এপ্রিলের পর থেকে যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে তরল অক্সিজেন নিয়ে আর কোনো অক্সিজেনবাহী গাড়ি দেশে আসেনি।

করোনায় সংক্রমিত রোগীদের জীবন বাঁচাতে সম্প্রতি অক্সিজেনের চাহিদা আরও বেড়ে গেছে। দেশের চিকিৎসা খাতে অক্সিজেনের চাহিদার বড় একটি অংশ আমদানি হয়ে থাকে ভারত থেকে। যা কিনা ভারত থেকে প্রতি মাসে শুধু বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে প্রায় ৩০ হাজার মেট্রিক টন অক্সিজেন আমদানি হয়ে থাকে বাংলাদেশে।

বেনাপোল স্থলবন্দর সূত্র বলছে, লিন্ডে বাংলাদেশ, এক্সপেকট্রা, পিওর অক্সিজেনসহ পাঁচটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারত থেকে বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে তরল অক্সিজেন আমদানি করে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পেট্রাপোল ও বাংলাদেশের বেনাপোল স্থলবন্দর হয়ে ওই অক্সিজেন বাংলাদেশে আসে।

জানা যায় গত ২১ এপ্রিলের আগে ভারত থেকে বেনাপোল স্থলবন্দর হয়ে এক সপ্তাহে দেশে আসে ৪৯৮ মেট্রিক টনের বেশি তরল অক্সিজেন । ২৯টি ট্যাংকারে এই তরল অক্সিজেন বাংলাদেশে আসে। যার আমদানিমূল্য প্রতি মেট্রিক টন ১৬৫ মার্কিন ডলার। এই অক্সিজেন দুটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান লিন্ডে বাংলাদেশ ও এক্সপেকট্রা ওই অক্সিজেন আমদানি করে থাকে। তবে বর্তমানে ভারতে করোনা রোগীদের চিকিৎসায় অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে।

ভারতে অক্সিজেনের সংকট দেখা দেয়ায় ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞার কারণে এখন আর কোনো অক্সিজেন ভারত থেকে দেশে আসছে না।’

Share.

Leave A Reply