fbpx

২৭১ রান উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ স্বাগতিকদের

Pinterest LinkedIn Tumblr +
যেন পরাজয়ের বৃত্তে ঘুরছে টিম বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভালে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও হারলো জাতীয় ক্রিকেট দল। টার্গেট ২৭১ রান পেরিয়ে ৩ ম্যাচের সিরিজ নিজেদের করে নিলো স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। সেই সঙ্গে এ ভেনুতে রেকর্ড গড়া রান চেইজের জয়ের স্বীকৃতিও ব্ল্যাক ক্যাপসদের।
নিউজিল্যান্ডের আজকের জয় অধিনায়ক টম ল্যাথামের ব্যাটে ভর করে। তার অনবদ্য ব্যাটিংয়ে দিশেহারা টাইগার স্কোয়াড। সেঞ্চুরি করে দলকেও জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন ল্যাথাম।ডানেডিনের প্রথম ওয়ানডেতে পরাজয় ছিল ৮ উইকেটে। এবার টিম টাইগারদের সান্তনা শুধু  ৫ উইকেটে হারের। তা কি প্রবোধ দেবে দেশের ক্রিকেট ভালোবাসা কোনো ভক্তকে?
তামিম, মিঠুনসহ অন্যদের যৌথতায় ২৭১ রানের পুঁজি এনে দিয়েছিল ব্যাটসম্যানরা। বোলাররাও খারাপ শুরু করেনি। শুরুতে ৫৩ রানে ৩ উইকেট হারায় কিউইরা। কিন্তু ল্যাথাম ও কনওয়ের চওড়া ব্যাটে ম্যাচে ফেরে নিউজিল্যান্ড।
টাইগার ফিল্ডাররা সুযোগ পায়নি বলা যাবে না ম্যাচে। কিন্তু একের পর ক্যাচ মিস যে কতটা আত্মঘাতি তারই দৃষ্টান্ত আজকের সিরিজ বেহাত হওয়া ম্যাচ।
কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিলকে থিতু হতে দেননি মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজের পঞ্চম ওভারের শেষ বল মিডউইকেট দিয়ে রান নিতে চেয়েছিলেন গাপটিল। কিন্তু বল উপরে উঠে গেলে নিজের বলে নিজেই ক্যাচ নেন মুস্তাফিজ। ২৪ বলে ২০ রানে থামে কিউই ওপেনারের ইনিংস।
এরপর হেনরি নিকোলসকে আউট করেন তরুণ মেহেদি হাসান। উইল ইয়ংকেও টিকতে দেয়নি তার বোলিং। কিন্তু টপ অর্ডারের তিন উইকেট হারানোর পর যেন দিশা ফেরে নিউজিল্যান্ডের।
চলে ল্যাথামের নান্দনিক ব্যাটিং। ৪৬ তম ওভারে নিশামকে ফেরান মোস্তাফিজ। কিন্তু ততক্ষণে ম্যাচ হাত ছাড়া টাইগারদের। বাংলাদেশের ব্যাটারদের জন্য দৃষ্টান্তমূলত তার ১১০ রানে অপরাজিত ইনিংস। দলকে জিতিয়ে টিম ল্যাথাম ম্যাচ সেরা হন এ কীর্তিতেই। এ মাঠে ২৭১ রান সুরক্ষিত নয়, তা প্রমাণ করে ২৭৫ এ ম্যাচ শেষ করে নিউজিল্যান্ড। তামিম প্রতিশ্রুত ধারালো বাংলাদেশি ব্র্যান্ড ক্রিকেটকে যেন অনেক কিছু নিয়ে ভাবনার সময় দিলো মঙ্গলবারের নিউজিল্যান্ড।
Share.

Leave A Reply