fbpx

৬ দফা দাবিতে বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের মে দিবস পালিত

Pinterest LinkedIn Tumblr +

মহান মে দিবসের ১৩৫ বছর পূর্তিতে বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশন স্বাস্থ্যবিধি মেনে একটি প্রতীকী মানববন্ধন করেছে। শনিবার (১ মে) সকাল সাড়ে এগারোটায় মিরপুর-১২ বাসষ্ট্যান্ডে এই মানববন্ধনের আয়োয়ন করে। যেখানে উপস্থিত ছিলেন ফেডারেশনের সভাপতি ও ইন্ডাষ্ট্রি অল বাংলাদেশ কাউন্সিল-আইবিসি এর সাবেক মহাসচিব মোঃ তৌহিদুর রহমান।

ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা রহমান মানববন্ধনে সরকার ও মালিকপক্ষের কাছে তাদের ৬ দফা দাবি তুলে ধরেন। এগুলো হলো:

১। দেশের সকল শ্রমিকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনা ভ্যাকসিন দিতে হবে।
২। বাঁচার মত মজুরী পোশাক শ্রমিকদের নিশ্চিত করে, উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির পদক্ষেপ নিতে হবে।
৩। সকল প্রকার হয়রানী, নির্যাতন মুক্ত নিরাপদ কর্মস্থল নিশ্চিত করতে সরকার সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে কার্যকর  ভূমিকা নিতে হবে।
৪। আইএলও কনভেনশন-১৯০ অবিলম্বে সরকারকে অনুস্বাক্ষর করতে হবে।
৫। মাতৃত্বকালীন ছুটি ৬ মাসে উন্নিত করতে হবে। এক দেশ দুই নীতি পরিহার করতে হবে।
৬। করোনাকালীন সময়ে কাজের বিপরীতে শ্রমিকদের ঝুঁকি ভাতা দিতে হবে। করোনা আক্রান্ত শ্রমিকের সু-চিকিৎসা ও মৃত্যুজনিত  সকল ক্ষতিপূরণ লস অব আর্নিং এর সঙ্গায় দিতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে মোঃ তৌহিদুর রহমান বলেন, করোনা সংক্রমন রোধে যেখানে সরকার লকডাউন ঘোষণা করে, সেখানে পোশাক শ্রমিকরা কাজে যেতে বাধ্য হয়। সরকার মালিকদের নানামূখি চাপের কাছে বার বার নতি স্বীকার করেছে অথচ নিম্নআয়ের মানুষেরা কিভাবে জীবন-যাপন করবে তার কোন ব্যবস্থা করতে সরকার চরম ভাবে ব্যর্থ হয়েছে।

তিনি দেশের সকল শ্রমিক সংগঠনকে অধিকার আদায়ে মহান মে দিবসের আলোকে ঐক্যবদ্ধ হবার আহবান জানান।

কর্মসূচিতে বক্তারা পোশাক শিল্পের সকল শ্রমিককে ২৫ রমজানের মধ্যে ঈদ বোনাস সহ মজুরী, ওভারটাইম পরিশোধের দাবী জানিয়ে বলেন, করোনা ঝুঁকি নিয়ে জীবন বাজি রেখে শিল্পের শ্রমিকরা  সরকার ঘোষিত লকডাউনের মধ্যে উৎপাদনের চাকা অব্যাহত রেখেছেন। তাদের দেনা-পাওনা পরিশোধে কোন প্রকার তালবাহানা বরদাস্ত করা হবে না। রাষ্ট্রকে বিষয়টি নিশ্চিতকরণে কঠোর মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ ৬ দফা দাবী অবিলম্বে বাস্তবায়নের জন্য সরকার মালিকদের নিকট জোর দাবি জানান।

Share.

Leave A Reply