fbpx

‘আমাকে হত্যার চেষ্টা চলছে’

Pinterest LinkedIn Tumblr +

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা অভিযোগ করেছেন, তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাঁর নেতা-কর্মীদের হয়রানি করাসহ  সাত-আটজন কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

১৩ মার্চ শনিবার সকালে বসুরহাট পৌরসভা কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

এসময় কাদের মির্জা আরও জানান, গত শুক্রবার এমপি একরামের বাড়িতে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয় এবং নেতা কর্মীদের বাড়িতে ডিবি পুলিশ অভিযান চালানোসহ তাদের পরিবারের লোকজনকে হয়রানি করছে।

নেতা-কর্মীদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কিত তিনি। এ বিষয়ে প্রশাসন ও সরকার কী ব্যবস্থা নেবে, তিনি তার অপেক্ষায় আছেন জানিয়ে কাদের মির্জা বলেন, শরীরে এক ফোঁটা রক্ত থাকা অবস্থায় আমি এখান থেকে নড়ব না।’

সংবাদ সম্মেলন থেকে ‘সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক আলাউদ্দিন হত্যার ঘটনার তদন্তের দায়িত্ব তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ ও কেন্দ্রীয় নেতা সুজিত রায় নন্দীকে দেওয়ার দাবি জানান আবদুল কাদের মির্জা। বিচার বিভাগীয় তদন্তের পাশাপাশি সরকারি গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই ও ডিজিএফআইকে দিয়ে ঘটনা তদন্ত করতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানান তিনি। কাদের মির্জা বলেন, ‘তদন্তে যদি আমি বা আমার কোনো কর্মীর অপরাধ প্রমাণিত হয়, যে শাস্তি দেবেন, তা আমরা মাথা পেতে নেব।’

এদিকে বসুরহাট পৌরসভার পরিস্থিতি এখনও শিথিল নয়, শহরে পাহারা দিচ্ছে তিন শতাধিক পুলিশ সদস্য ও র‌্যাবের একাধিক দল।

গ্রেফতার–আতঙ্কের কারণে দোকানপাট খুলছেন না অনেকেই । আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। শহরের রুপালি চত্বর, বঙ্গবন্ধু চত্বর, পৌরসভা গেট, উপজেলা পরিষদ গেটসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Share.

Leave A Reply