fbpx

ঘাতক চালকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা মেয়র তাপসের

Pinterest LinkedIn Tumblr +

সিটি করপোরেশনের ময়লাবাহী গাড়ির ধাক্কায় নিহত নটরডেম কলেজের ছাত্র নঈম হাসানের পরিবারকে সান্ত্বনা জানাতে বুধবার রাতে কামরাঙ্গীরচরের জাওলাহাটি এলাকায় নাঈমের বাড়িতে যান ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ও স্থানীয় সংসদ সদস্য এডভোকেট কামরুল ইসলাম। এসময় ঘাতক চালকের সর্বোচ্চ শাস্তি কামনা করেন তারা।

সন্তান হারা পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়া যায় না উল্লেখ করে ডিএসসিসি মেয়র গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আসলে সন্তান হারা পিতা-মাতাকে তো সান্ত্বনা দেওয়া যায় না। আমার নিজেরও দুই সন্তান। নিজেই উপলব্ধি করি, এটা কি রকম বেদনাদায়ক ও মর্মান্তিক ঘটনা। এই কষ্ট ভাষায় প্রকাশ করা যায় না।‘

ঘাতক চালকের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করে তাপস বলেন, ‘এ রকম গাফিলতি এবং কোনো অন্যায় বরদাশত করা হবে না। এরই মাঝে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে। আমরা তদন্ত কমিটি করেছি এবং আমরা এরই মাঝে তাদেরকে চিহ্নিত করেছি। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা এবং প্রাতিষ্ঠানিক যে কার্যক্রম আছে সেগুলোও আমরা নেব। যাতে করে সুষ্ঠুভাবে বিচার সম্পন্ন হয় এবং সর্বোচ্চ শাস্তি যেন হয়, সেটাই আমরা কামনা করি।‘

সংসদ সদস্য এডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, ‘মেয়র সাহেব তো আছেন। মেয়র সাহেব খোঁজখবর নেবেন। যে কোনো ব্যাপারে মেয়র সহযোগিতা করবেন, আমরা সহযোগিতা করব। কাউন্সিলরকে দিয়ে যে কোনো সময়, যে কোনো ব্যাপারে সহযোগিতার প্রয়োজন হলে খবর দেবেন, চলে আসব। মেয়র সাহেব আপনাদের ব্যাপারে সম্ভাব্য সবই করবেন।‘

বুধবার দুপুরে রাজধানীর গুলিস্তান হল মার্কেটের সামনে রাস্তা পার হবার সময় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ি নঈম হাসানকে (১৭) ধাক্কা দিলে তার মৃত্যু হয়। নঈম হাসান নটর ডেম কলেজের উচ্চমাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। তার মৃত্যুতে কলেজের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করে। পরে কলেজের শিক্ষকরা এসে ছাত্রদেরকে বুঝিয়ে বিক্ষোভ থেকে সরিয়ে নিয়ে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

Share.

Leave A Reply