fbpx

ড্রেন নির্মাণে মানতে হবে কীটতত্ত্ববিদের পরামর্শ: মেয়র আতিক

Pinterest LinkedIn Tumblr +

ফুটপাত ও ড্রেন নির্মাণের সময় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ এবং কীটতত্ত্ববিদদের কথা অনুযায়ী কাজ করার পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে ডিএনসিসির সমন্বিত অভিযানে অংশ নিয়ে একথা বলেন তিনি।

মেয়র বলেন, ফুটপাতের নিচের ড্রেনে মশার বিস্তর প্রজননক্ষেত্র পাওয়া গেছে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ ও কীটতত্ত্ববিদদের পরামর্শ অনুযায়ী ড্রেন নির্মাণ করা হলে, ড্রেনে মশার প্রজননক্ষেত্র যেমন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে, একইসঙ্গে ড্রেনের পানিও সুষ্ঠুভাবে চলাচল করবে।

যার যার আঙিনায় ডোবা নালা পরিষ্কার রাখার আহ্বান জানিয়ে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ভেতরে মশক নিধন আমরা করি না। এগুলো আমাদের জন্য সম্ভবও না। পাবলিক ড্রেন, খাল ইত্যাদি নিয়ে আমরা কাজ করি। তাই যার যার আঙিনায় ডোবা-নালা ইত্যাদি পরিষ্কার করা হলে আমাদের জন্য সুবিধা হবে।‘

সোমবার সাগুফতা খাল পরিষ্কার করতে গিয়ে দেখা গেছে খালের ভেতর পয়োনিষ্কাশন লাইন সংযুক্ত। খাল থেকে পয়োনিষ্কাশনের লাইনগুলো আলাদা করা আরো বড় চ্যালেঞ্জ বলে জানালেন ডিএনসিসি মেয়র।

‘খাল উদ্ধারের মতো মশক নিধনও বড় চ্যালেঞ্জ,’ উল্লেখ করে মেয়র আতিক বলেন, ‘দশদিনের অভিযান শেষে মশা নিয়ন্ত্রণে আমরা কতটা সফল হয়েছি, তা আপনাদের জানাবো। এখানে লুকানোর কিছু নাই। কীটতত্ত্ববিদরা জানাবে মশা নিয়ন্ত্রণে আমাদের ভুলগুলি কোথায়। এ অভিযান শেষ হলে মশক নিধন কর্মীদেরকে পর্যায়ক্রমে আধুনিক প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।‘

সোমবার যেসব এলাকায় অভিযান চালানো হয়েছিল, মঙ্গলবার সেসব এলাকায় মশার উপদ্রব কম দেখা গেছে বলেও জানান ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

Share.

Leave A Reply