fbpx

গোপনেই বিয়ে সারলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

Pinterest LinkedIn Tumblr +

চুপিসারেই তৃতীয় বিয়েটা সেরে নিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। কনে বান্ধবী ক্যারি সিমন্ডস।

শনিবার লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ক্যাথেড্রালে নিশ্ছিদ্র গোপনীয়তার মধ্যে তাদের বিয়ে হয়েছে। বিয়েতে পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন। রবিবার সংবামমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এই তথ্য দেওয়া হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর ডাউনিং স্ট্রিট কার্যালয় থেকে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানানো হয়েছে।

দ্য মেইলের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যে করোনা মহামারির নিষেধাজ্ঞার কারণে ত্রিশ জনের বেশি জনসমাবেশ করার অনুমতি নেই। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বিয়ের অনুষ্ঠানে তাই সব মিলে ত্রিশ জন অতিথিকেই আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল।

ওয়ার্কস অ্যান্ড পেনশনস সেক্রেটারি টেরেস কফি এক টুইটার পোস্টে নবদম্পতিকে অভিনন্দন জানিয়ে লিখেছেন, ” বিয়ে করার জন্য বরিস জনসন ও ক্যারি সিমন্ডসকে অভিনন্দন”।

অভিনন্দন জানিয়েছেন বরিসের আরও অনেক রাজনৈতিক সহযোগী ও সমর্থকরাও।

২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে বরিস ও ক্যারি বিয়ে করবেন বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। ৫৬ বছর বয়সী বরিস ও ৩৩ বছর বয়সী ক্যারি ছিলেন ডাউনিং স্ট্রিটে বসবাসকারী প্রথম অবিবাহিত যুগল।

গেল বছর এপ্রিলে তাদের কোলজুড়ে আসে পুত্র সন্তান উইলফ্রেড।

এর আগে আরও দুটি বিয়ে করেছিলেন বরিস। দুজনের সাথেই বিচ্ছেদ হয়েছে। সবশেষ, ২০১৮ সালে দ্বিতীয় স্ত্রী ম্যারিনা হোয়েলার সাথে বিচ্ছেদ হয় তার। ম্যারিনা-বরিসের ঘরেও রয়েছে চারটি সন্তান।

Share.

Leave A Reply