fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৩০শে নভেম্বর ২০২২ | ১৫ই অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

রাতে রোভারের মঙ্গলে ল্যান্ডিংয়ের চ্যালেঞ্জ, চলবে সরাসরি সম্প্রচার

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement
পৃথিবী বিষাদময়। একটু শান্তি পেতে মানুষ যেন সঙ্গী খুঁজছে মহাকাশে। সবচেয়ে কাছের গ্রহ মঙ্গলকেই তাই বেছে নেয়া।
কাছের মানে কিন্তু কাছের নয়! পৃথিবী থেকে মঙ্গলের দূরত্ব ১৯ হাজার ৬০৬ লক্ষ মাইল। উৎক্ষেপণের পর মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার (নাসা) পাঠানো মনুষ্যবিহীন নভোযান রোভারের টানা সাত মাসের ছুট শেষ হচ্ছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১ টা ১৫ মিনিটে। তখন লাল গ্রহ মঙ্গলে পা ছোঁয়ানোর চ্যালেঞ্জ নেবে রোভার।
রাতে রোভারের মঙ্গলে ল্যান্ডিংয়ের চ্যালেঞ্জ, চলবে সরাসরি সম্প্রচার

এ লাল গ্রহ নিয়ে মানুষের আগ্রহ তুমুল। ছবি: নাসা

সত্যিই উদযাপনের এ লগ্ন। সেই ঐতিহাসিক মুহূর্তটি সরাসরি সম্প্রচার করবে নাসা। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত ১টা ১৫ মিনিট থেকে শুরু হবে এ চ্যালেঞ্জের সরাসরি সম্প্রচার।
নাসার সাদার্ন ক্যার্লিফোর্নিয়ার জেট প্রপালশিয়াল ল্যাবরেটরি থেকে এর সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। সারা পৃথিবীর মানুষ ভার্চুয়ালি রোভার ল্যান্ডিয়ের সাক্ষ্য হতে পারবে। নাসা টিভি, ও নাসার ওয়েবসাইটে দেখানো হবে এই সম্প্রচার। এছাড়া নাসা অ্যাপ, ইউটিউব, টুইটার, ফেসবুক, লিঙ্কডইন দেখা যাবে এ ঐতিহাসিক মুহূর্ত।
২০২০ সালে নাসার সবচেয়ে বড় মিশন ছিল এই মঙ্গল অভিযান। এই মঙ্গলযানে রিয়েল টাইম ছবি তুলে রাখার স্বয়ংক্রিয় যন্ত্র আছে। এর মধ্যে থাকা সফটওয়্যার এই রোভারকে পছন্দমত স্থান নির্বাচন করে নামতে সাহায্য করবে।
নাসা জানাচ্ছে, মঙ্গলে ‘জেজোরো ক্রেটার’ এলাকায় নামতে চলেছে নাসার স্বপ্নের মঙ্গলযান রোভার। এলাকাটির আয়তন ২৮ মাইলেরও বেশি। এই জায়গাটি বেশ কয়েক কোটি বছর আগে কোনও সুবিশাল আগ্নেয়গিরির জন্য ওই বিশালাকার গর্ত বা ক্রেটার তৈরি হয়েছিল। সমতল সেখানে খুবই কম। ভর্তি খুব উঁচু উঁচু পাহাড়ে। ৩০০ কি ৪০০ মিটার অন্তর সুউচ্চ পর্বতশৃঙ্গ।
নাসার বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, অবতরণের জন্য প্রয়োজন অসম্ভব দক্ষতার। নিখুঁত টাইমিং ও সঠিক স্থান নির্বাচন এক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নামার আগে থেকে খুব নিখুঁতভাবে জায়গাটাকে চিনতে না পারলে যেকোনো পাহাড়ে ধাক্কা লেগে ভেঙে পড়তে পারে নাসার রোভার। এমনকি পাহাড়ের খাঁজে আটকে গিয়ে বিকলও হয়ে যেতে পারে এ নভোযান। চ্যালেঞ্জ বোধ হয় একেই বলে। সরাসরি পৃথিবী থেকে তা দেখার দৃশ্য হতে যাচ্ছে তাই উত্তেজনাময়।
Advertisement
Share.

Leave A Reply