fbpx
BBS_AD_BBSBAN
৪ঠা ডিসেম্বর ২০২২ | ১৯শে অগ্রহায়ণ ১৪২৯ | পরীক্ষামূলক প্রকাশনা

৩৮ আর্থিক প্রতিষ্ঠানে আটকে আছে আড়াই লাখ কোটি টাকা !

Pinterest LinkedIn Tumblr +
Advertisement

দেশে বিভিন্ন ব্যাংক ও আর্থিক খাতের প্রায় ২ লাখ ৭৭ লাখ ৯৪ টি মামলা আদালতে নিষ্পত্তির পথে। তবে মামলার বিপরীতে এসব প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে ২ লাখ ৫১ হাজার ২৬৯ কোটি টাকা আটকে আছে।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের পাঠানো এক প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে। প্রতিবেদনটিতে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত ব্যাংক ও আর্থিক খাতের মামলার সংখ্যা ও এর সঙ্গে জড়িত অর্থের পরিমাণ তুলে ধরা হয়েছে।

প্রতিবেদন বলছে, এসব মামলার মধ্যে সার্টিফিকেট মামলার সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি। এর সংখ্যা ১ লাখ ৫২ হাজার ৬২৬টি। তবে এই মামলায় জড়িত টাকার পরিমাণ সবচেয়ে কম, ২ হাজার ৪১৯ কোটি টাকা। এছাড়া অর্থঋণ আদালতে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ৬০ হাজার ৯৭৩টি। এখানে আটকে রয়েছে ১ লাখ ২৯ হাজার ১১৫ কোটি টাকা। পাশাপাশি রিট ৫ হাজারটি মামলায় ৩৪ হাজার ৭৮৮ কোটি এবং দেউলিয়া ও অন্যান্য ৫৮ হাজার ৪৯৫টি মামলায় ৮৪ হাজার ৯০৬ কোটি টাকা আটকে আছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কাছে এ প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেদনে অনুযায়ী, রাষ্ট্রমালিকানাধীন সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বেসিক ও বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডের (বিডিবিএল) আটকে আছে মোট ১ লাখ ৬ হাজার ৩৯৭ কোটি টাকা। এদের মামলার সংখ্যা ৭৯ হাজার ৭৮২টি।

এদিকে ১৪টি বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠানের কাছেও বড় অংকের টাকা আটকে আছে। এর মধ্যে রয়েছে সাতটি বিশেষায়িত ব্যাংক। এগুলো হচ্ছে বিকেবি, রাকাব, কর্মসংস্থান ব্যাংক, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক, পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক, আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক ও বাংলাদেশ সমবায় ব্যাংক।

আর বিশেষায়িত আর্থিক প্রতিষ্ঠান সাতটি—বিএইচবিএফসি, আইসিবি, বিএসইসি, এসবিসি, জেবিসি, আইডিআরএ ও এমআরএ। ১৪টি প্রতিষ্ঠানের মামলা ১ লাখ ২৮ হাজার ৭৪৭টি। এগুলোতে জড়িত অর্থের পরিমাণ ৭ হাজার ৭২৫ কোটি টাকা।

রাষ্ট্রমালিকানাধীন ও সরকারি ব্যাংকগুলোতে একসময় নিষ্পত্তির অপেক্ষায় থাকা সব ধরনের মামলায় জড়িত টাকার পরিমাণ বেশি থাকত। কিন্ত এখন বেসরকারি ব্যাংকগুলো তাদের ছাড়িয়ে গেছে। দেশের ৩৮ টি বেসরকারি ব্যাংকের কাছে ১ লাখ ২২ হাজার ২৭৪ কোটি টাকা আটকে আছে। আর তাদের মামলার সংখ্যা ৬৪ হাজার ৮৬০টি।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, বেসরকারি ব্যাংকের বাইরে ২৮টি বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মামলা সংখ্যা ১৭ হাজার ২৩৩। তাদের কাছে আটকে আছে ১০ হাজার ৭৭৬ কোটি টাকা।

Advertisement
Share.

Leave A Reply