fbpx

আবার মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ

Pinterest LinkedIn Tumblr +

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বের পাঁচ ম্যাচে জিতেছে বার্সেলোনা। “জি” গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বার্সার পরেই জুভেন্তাস। পাঁচ ম্যাচের একটাতেই হেরেছে ইতালিয়ান ক্লাব, সেটাও ঘরের মাঠে, বার্সেলোনার বিপক্ষেই! বুধবার ক্যাম্প ন্যুতে বাংলাদেশ সময় রাত দুইটায়, আবার মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা-জুভেন্তাস।

আবার মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ

মেসি-রোনালদো, ছবি: সংগৃহীত

দুই দলেরই নক আউট পর্ব নিশ্চিত হয়েছে। তারপরও খুব স্বাভাবিকভাবেই দুই জায়ান্টের লড়াই পাচ্ছে বাড়তি মর্যাদা, যেখানে সবচেয়ে বড় রসদ; মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ। কে জানে, এই ম্যাচের পর আবার কবে ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই দুই ফুটবলার একে অপরের মুখোমুখি হবেন! হতেও পারে, এটাই শেষ!

অ্যাওয়ে ম্যাচে আন্দ্রে পিরলোর জুভেন্তাসকে বার্সেলোনা হারিয়েছিল দুই গোলে। তবে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোনালদো সেই ম্যাচ খেলেননি। রোনালদো ফিরেছেন, মাঠে নামতে শতভাগ প্রস্তুতও বটে! তাই তুরিনের ওল্ড লেডির স্বপ্ন আর প্রত্যাশার পারদও উঁচুতেই থাকার কথা, রোনালদো যে ফিরেছেন। বাড়তি আত্মবিশ্বাস হতে পারে, প্রতিপক্ষ বার্সার লা লিগার পারফর্ম্যান্স। শেষ ম্যাচে কাদিজের বিপক্ষে হার ২-১ গোলে, পয়েন্ট টেবিলের নয়ে।

যদিও, গ্রুপের শীর্ষস্থান দখলের লড়াইয়ে অনেকটাই এগিয়ে থাকবে বার্সেলোনা। জুভেন্তাস জিতলেও স্বাগতিকদের হারাতে হবে নুন্যতম ৩ গোলের ব্যবধানে, নয়তো ২-০ গোলে। পরিসংখ্যান বলছে কাজটা বেশ কঠিন, আবার সেই পরিসংখ্যানই স্বাক্ষ্য দিচ্ছে; অসম্ভব নয়।

২০১৬-১৭ মৌসুমের পর থেকে এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বের কোনো ম্যাচ হারেনি বার্সেলোনা। তবে স্প্যানিশ গণমাধ্যমের সংবাদ বিবেচনায় নিলে বলা যায়, বার্সার ড্রেসিংরুমের অসন্তোষ হতে পারে বাড়তি চিন্তার কারণ, তৈরী করতে পারে চাপ। গুঞ্জন আছে, আগামী মৌসুমেই বার্সা ছাড়তে পারেন মেসি। ইনজুরির কারণে আপাতত হিসেবের বাইরে উসমান দেম্বেলে, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে মাঠেরই বাইরে।

হেড টু হেডে বার্সালোনা-জুভেন্তাস খেলেছে ১২ ম্যাচ। বার্সা জিতেছে ৫টি, ৩ জয় জুভেন্তাসের। ক্যাম্প ন্যুতে শেষ দেখায়ও জিতেছিল বার্সা, ৩-১ গোলে। বার্সেলোনায় জুভেন্তাসের সবশেষ জয়, ২০০২-০৩ মৌসুমে।

Share.

Leave A Reply