fbpx

শার্দুল যেটাতেই হাত দিচ্ছে, সেটাই সোনা হয়ে যাচ্ছে: গাভাস্কার

Pinterest LinkedIn Tumblr +

পাঁচ ম্যাচ টেস্ট সিরিজের চতুর্থ টেস্টে ওভালে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে ১৫৭ রানে হারিয়ে সিরিজে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে ভিরাট কোহলির দল। দলের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন শার্দুল ঠাকুর। প্রথম ইনিংসে ৫৭ রান করার পাশাপাশি দ্বিতীয় ইনিংসেও করেছেন অর্ধশতক। ভারতীয় এই অলরাউন্ডারকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন সুনীল গাভাস্কার।

গাভাস্কার বলেন, ‘কি দুর্দান্ত খেলোয়াড় সে! যেটাতেই হাত দিচ্ছে সেটাই সোনা হয়ে যাচ্ছে। শুধু একবার তার ব্যাটিংয়ের দিতে তাকান। চোখ জুড়িয়ে যাওয়ার মতো ব্যাটিং’।

শার্দুল যেটাতেই হাত দিচ্ছে, সেটাই সোনা হয়ে যাচ্ছে: গাভাস্কার

জো রুটের উইকেট এবং ভারতীয় খেলোয়াড়দের উদযাপন। ছবি: ইএসপিএন

ব্যাটিং করার পাশাপাশি বল হাতে দুই ইনিংসে তিনটি উইকেট নিয়েছেন শার্দুল, রেখেছেন দলের জয়ে অবদান। এতেই সন্তুষ্ট ভারতীয় পেসার।

নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে শার্দুল ঠাকুর বলেন, ‘যখন আমি জানতে পারলাম আমি চতুর্থ টেস্টে খেলতে যাচ্ছি, আমি চেয়েছিলাম দলের হয়ে দারুণ কিছু করতে এবং পঞ্চম দিন শেষে যখন দলকে বিজয়ী রুপে দেখছি, তখন আমি সত্যিই ভীষণ খুশি। দলের জয়ে অবদান রাখতে পেরেছি। ১০০ রানের পাশাপাশি তিনটি উইকেটও নিয়েছি। আমি সবসময়ই বিশ্বাস করতাম, আমি ব্যাটিংটাও পারি। নেটে অনেক সময় দিয়েছি এবং এখন তার ফল পাচ্ছি’।

শার্দুল যেটাতেই হাত দিচ্ছে, সেটাই সোনা হয়ে যাচ্ছে: গাভাস্কার

শার্দুলকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন রোহিতও। ছবি: ইএসপিএন

ওভাল টেস্টে সেঞ্চুরী করেছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা, বিদেশের মাটিতে প্রথম শতক। ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কারটাও উঠেছে তার হাতেই। কিন্তু, রোহিত মনে করেন এই সাফল্য শার্দুলেরও।

রোহিত বলেন, ‘ম্যাচ উইনিং একটা খেলা উপহার দিয়েছে শার্দুল। কোনো সন্দেহ নেই, ম্যান অব দ্য ম্যাচটা তারও প্রাপ্য। ও শুধু গুরুত্বপূর্ণ সময়ে উইকেটই এনে দেয়নি দলকে, ব্যাট হাতে বদলে দিয়েছে পুরো দৃশ্যপটটাই। আমরা প্রথম ইনিংসে ১৩০/৪০ রানেও অলআউট হতে পারতাম। শার্দুলের ৩০ বলে ৫০ রানের ইনিংসটাই ব্যবধান গড়ে দিয়েছে। ও ব্যাটিং নিয়ে অনেক কাজ করেছে, এবং এখন সুফলও পাচ্ছে’।

চতুর্থ টেস্টে ভারতীয় বোলারদের দৃঢ়তায় জয় এসেছে ১৫৭ রানে। এই জয়ের মধ্য দিয়ে সিরিজে ২-১ এ এগিয়ে সফরকারীরা। ম্যানচেস্টারে সিরিজের পঞ্চম এবং শেষ টেস্টে ১০ সেপ্টেম্বর মাঠে নামবে দুই দল।

Share.

Leave A Reply